বৃহস্পতিবার, ১৫ অক্টোবর ২০২০, ০৪:২৫ অপরাহ্ন
শিরোনাম ::
ভূরুঙ্গামারীতে গো-খাদ্যের তীব্র সংকট মণ দরে বিক্রি হচ্ছে খড় নরসিংদী জেলার শ্রেষ্ঠ পুলিশ অফিসারদের মধ্যে পুরস্কার প্রদান শ্রীপুরে পাঠাগার উদ্বোধন ঝালকাঠিতে প্রতিপক্ষের টেটা বৃদ্ধার বুকে,মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছেন আইসিইউতে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় শেষকৃত্য সম্পন্ন মানবতা ও প্রগতিশীল চিন্তার ধারক এক বীর মুক্তিযোদ্ধার জীবনাবসান প্রতি বছরই উচ্চশিক্ষায় আসন ফাঁকা থাকে পাঁচবিবিতে ইউএনও এর হস্তক্ষেপে বাল্য বিবাহ বন্ধ ব্যবসা-বাণিজ্যে স্থবিরতা: পরিশোধ করতে পারছেন না ব্যাংক ‍ঋণ দুর্গাপুরে প্রতিমা তৈরীর কাজে ব্যস্ত মৃৎশিল্পীরা আরবদের মাঝে লাফিয়ে বাড়ছে এরদোয়ানের জনপ্রিয়তা, কিন্তু কেন?




পুর্নভবা নদীর পানি বৃদ্ধি ও বিল রক্ষা বাঁধের স্লুইচ গেট বন্ধ থাকায় জবই বিল এলাকায় আমন ফসল বিনষ্ট

কামরুল ইসলাম সাপাহার (নওগাঁ) প্রতিনিধি :
  • আপডেট সময় রবিবার, ২০ সেপ্টেম্বর, ২০২০




মৌসুমী বায়ুর প্রভাব ও ভারতের উজান থেকে নেমে আসা বন্যা এবং পানিউন্নয়ন বোর্ডের নব নির্মিত স্লইচ গেটে পানি প্রবাহ বাধাগ্রস্থ হওয়ায় সাপাহার উপজেলার ঐতিহ্যবাহী জবই বিলে প্রচুর পরিমানে পানি বৃদ্ধি পেয়েছে। যার ফলে বিল এলাকার কয়েক হাজার বিঘা আমন ফসলী জমি পানির নিচে তলিয়ে গেছে। অনেক অর্থ ব্যয় করে আবাদ করা ফসলী জমির আবাদ বিনষ্ট হওয়ায় ওই এলাকার কৃষক কুল এখন দারুন হতাশায় ভুগছে। বিল এলাকায় সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে আকাশ থেকে প্রচুর বৃষ্টিপাত ও ভারতের উজান থেকে নেমে আসা সীমান্ত ঘেঁষা পুর্নভবা নদীর পানি এখন বিপদ সীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। সে সাথে জবই বিলের পানিও ফুলে ফেঁপে ওঠে অসংখ্য আমন আবাদের মাঠকে একাকার করে ফেলেছে। এদিকে এবছরই পানিউন্নয়ন বোর্ড কর্তৃক জবই বিল রক্ষা বাঁধ নির্মান করে মেইন পয়েন্টে ১২০ফুট প্রসস্ত জায়গায় ১৪কপাট বিশিষ্ট একটি স্লইচ গেট নির্মান করে তার সবকটি দরজা বন্ধ থাকতে দেখা গেছে। যার কারণে বিলের পানি নদীতে নামতে না পেরে বিল এলাকার ওই ফসলী জমিগুলি পানির নিচে তলিয়ে গেছে বলে উপজেলা কৃষি বিভাগ ও সাধারণ কৃষকগন মনে করছেন। উপজেলা কৃষি বিভাগের তথ্য মতে প্রকৃতিগত কারণ সহ বিভিন্ন করাণে ওই এলাকার প্রায় দেড় হাজার বিঘা জমির আমন ফসল পানির নিচে তলিয়ে গিয়ে সমুদয় ফসল নষ্ট হয়েছে। কয়েক দিন আগে বিষয়টি নিয়ে বিভিন্ন পত্র পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশ ও জানা জানি হওয়ার পরে পানি উন্নয়ন বোর্ডের নিদের্শক্রমে গত কয়েক দিন ধরে মেনুয়াল পদ্ধতিতে স্লইচ গেটের কপাটগুলি খোলার জোর চেষ্টা অব্যহত রয়েছে ফলে বিলের পানি কিছুটা হলেও কমতে শুরু করেছে। কপাটগুলি সম্পূর্ন খোলা ও নদীর পানিতে টান ধরলেই বিল পাড়ের অনেক আবাদি জমি জেগে উঠবে বলে কৃষককুল ও কৃষি বিভাগের কর্মকর্তাগন মনে করছেন। তবে ক্ষতিগ্রস্থ আবাদি জমিগুলিতে শতভাগ আমন ফসল না পেলেও সেখানে তারা আগাম রবি ফসল বুনতে পারবেন বলেও কৃষি বিভাগ ধারণা করছেন। এব্যাপারে নওগাঁ পানি উন্নয়ন বোর্ডের এস ডি সাখাওয়াত হোসেন এর সাথে মুঠো ফোনে কথা হলে তিন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন যে সম্প্রতি কিছু দিন পূর্বে সমাপ্ত হওয়া ওই স্লইচ গেটের দরজা তৈরী থেকেই বন্ধ ছিল। মুলত এই স্লইচ গেটটি নির্মিত হয়েছে জবই বিলে প্রচুর পরিমানে পানি ও মাছ আটকানোর জন্য। হঠাৎ প্রবল বৃষ্টিপাতে এতো পরিমান পানি বেড়ে যাবে যা ধারণা করা যায়নি। স্লইচ গেটে বিদ্যুত সংযোগ দেয়া হলেই সহজেই এই সমস্যা সমাধান করা যাবে। বর্তমানে সেখানে বিদ্যুৎ সংযোগ না দেয়ায় মেনুয়াল পদ্ধতিতে কপাটগুলি খুলতে একটু বেশী সময় লেগেছে। বর্তমানে ওই গেটের সকল কপাটগুলি খোলা হয়েছে এবং বিলের পানি প্রবল বেগে নিচে নামতে শুরু করেছে বলেও জানিয়েছেন।




শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর









© All rights reserved © 2020 khoborpatrabd.com
Theme Developed BY ThemesBazar.Com