শনিবার, ২৮ নভেম্বর ২০২০, ০৯:০৪ অপরাহ্ন




ভালুকায় বিরোধপূর্ণ জমি নিয়ে দু’পক্ষ মুখোমুখি

বিল্লাল হোসেন ভালুকা (ময়মনসিংহ) :
  • আপডেট সময় বুধবার, ২১ অক্টোবর, ২০২০




ময়মনসিংহের ভালুকায় বিরোধপূর্ণ প্রায় ৮ একর জমি নিয়ে মুখোমুখি অবস্থায়ন করছেন দু’পক্ষ। এক পক্ষ দাবি করছেন তাদের পৈত্রিক জমি আর অপর পক্ষের দাবি সিএসমুলে। ঘটনাটি উপজেলার মেদুয়ারী ইউনিয়নের বরাইদ গ্রামে। সরেজমিন খোঁজ নিয়ে ও স্থানীয়দের সাথে কথা বলে জানা গেছে, উপজেলার মেদুয়ারী ইউনিয়নের বরাইদ গ্রামের লোহাবৈ মৌজার ১২৭ নম্বর খতিয়ানের ৬৮০, ৬৮১, ৬৮২, ৬৮৪, ৬৮৫ ও ৬৮৬ নম্বর দাগসহ বেশ কয়েকটি দাগে প্রায় ৮ একর জমি নিয়ে মৃত আব্দুল হেকিম সরকারের ছেলে মো: লুৎফর রহমান গং ও মৃত আবুল কাশেমের ছেলে কয়েস মাহমুদ গংদের মাঝে দীর্গদিন ধরে বিরোধ চলে আসছে। জমিটির বেশিরভাগ অংশ মো: লুৎফর রহমান গং এর দখলে এবং কিছু অংশ বাবুল হোসেন গং এর দখলে রয়েছে। সম্প্রতি লুৎফর রহমান গং তাদের জমিতে পিলার পূঁতে সীমাণা প্রাচীর দেয়া শুরু করেল বাবুল হোসেন গং সমুদয় জমি তাদের বলে বাঁধা দেয় এবং দু;পক্ষ মুখোমুখি অবস্থান নেয়। লুৎফর রহমান জানান, লোহবৈ মৌজার উল্লেখিত দাগে প্রায় ৮ একর জমি তাদের পৈত্রিক সূত্রে পাওয়া। আর এসব জমির হাল নাগাদ নামজারি ও জমাখারিজ করা আছে। বাবুল গং আমাদের জমিতে রায়াত থাকার কারণে আমার পূর্বপুরুষরা তাদের থাকার জন্য সামান্য জমি দিয়ে যান। জমিতে সীমাণাপ্রাচীর করতে গেলে এখন রায়াত হয়ে সমুদয় জমির মালিকানা দাবি করছেন। এ ব্যাপারে কয়েস মাহমুদ জানান, উল্লেখিত দাগে ৭ একর ৮৬ শতাংশ জমি আমার পিতা আবুল কাশেমের নামে এবং আমার মা ও বোনেরা বাড়ি নির্মাণ করে ভোগ দখলে আছি। কিন্তু লুৎফর রহমান গং আমাদের জমিতে দখল করতে সীমণাপ্রাচীর নির্মাণ শুরু করলে আমরা বাঁধা প্রদান করি। উপজেলার মেদুয়ারী ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা আমিনুল ইসলাম জানান, বিআরএস ও আরওআর রেকর্ডমূলে ওই জমির মালিক বরাইদ গ্রামের মৃত আব্দুল হেকিম সরকার।




শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর









© All rights reserved © 2020 khoborpatrabd.com
Theme Developed BY ThemesBazar.Com