সোমবার, ৩০ নভেম্বর ২০২০, ০১:৪৯ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম ::
নওগাঁ জেলায় চলতি রবি মৌসুমে ২০ হাজার ৯শ ৬০ হেক্টর জমিতে আলু চাষের লক্ষ্যমাত্রা মাধবদীতে বিদেশী শীত বস্ত্রের দখলে মার্কেট গলাচিপায় ইপিজেড বাস্তবায়নের দাবীতে মানববন্ধন পলাশবাড়ী প্রেসক্লাবের ত্রি-বার্ষিক নির্বাচন বরিশালের দূর্গাসাগরে ১৩ বছর পর অতিথি পাখির আগমন, কলকাকলিতে মুখর করোনা: সাইটোকাইন স্টর্ম কেন হয়? পিরোজপুরে বঙ্গবন্ধু এর ভাস্কর্য নির্মাণের বিরোধিতার ও বিভ্রান্তি ছড়ানোর প্রতিবাদে মানববন্ধন রায়গঞ্জ রফিক ইন্টারন্যাশনাল স্যাটালাইটের সৌজন্যে গরীব দুঃস্থদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ করোনায় মারা গেছেন ওস্তাদ শাহাদাত হোসেন খান মনোহরদীতে মহিলা আওয়ামী লীগ’র ত্রিবার্ষিক সম্মেলন সভাপতি তামান্না ও সম্পাদক রুবী




মুজিববর্ষে জাতীয় করণের ঘোষণা চান স্বতন্ত্র ইবতেদায়ী মাদরাসা শিক্ষকরা মানববন্ধন ও স্মারকলিপি প্রদান

নীলফামারী প্রতিনিধি :
  • আপডেট সময় বুধবার, ২১ অক্টোবর, ২০২০




জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বার্ষিকী (মুজিববর্ষে) দেশের স্বতন্ত্র ইবতেদায়ী মাদরাসাগুলো জাতীয়করণের দাবীতে মানববন্ধন হয়েছে নীলফামারীতে। পরে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও মাননীয় শিক্ষামন্ত্রী ড. দীপু মনি বরাবর স্মারকলিপি প্রেরণ করেন শিক্ষক নেতারা। বুধবার সকাল ১১টা থেকে দুপুর সাড়ে ১২টা পর্যন্ত জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সামনে মানববন্ধন কর্মসুচী পালন করা হয় বাংলাদেশ স্বতন্ত্র ইবতেদায়ী মাদরাসা শিক্ষক সমিতি নীলফামারী জেলা শাখার ব্যানারে। এতে সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব ও নীলফামারী জেলা সভাপতি আবু মুসা ভুঁইঞা। বক্তব্য দেন লেবু মিয়া, জনাব আলী, আজহারুল ইসলাম, আব্দুল আজিজ, ফারুক মোল্লা, রবিউল ইসলাম, আবু বক্কর সিদ্দিক, রশিদুল ইসলাম, তরিকুল ইসলাম, হাফিজুল ইসলাম প্রমুখ। বক্তারা অভিযোগ করেন, সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোর মতই একই সময়ে একই সিলেবাসে পাঠদান করান ইবতেদায়ী শিক্ষকরা। এমনকি প্রাথমিক শিক্ষকদের মত মাদরাসা শিক্ষকরাও সরকারী কাজে অংশগ্রহণ করে থাকেন কিন্তু দুর্ভাগ্য প্রাইমারী শিক্ষকরা মাস শেষে ২২ থেকে ৩০ হাজার পর্যন্ত টাকা পেয়ে থাকেন আর আমরা পাই না বললেই চলে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা ২০১৩ সালে একযোগে দেশের ২৬হাজার ১৯৩টি রেজিস্ট্রার্ড বেসরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় জাতীয় করণ করে শিক্ষকদের স্বপ্ন বাস্তবায়ন করেছেন কিন্তু আমরা এখোনো জাতীয় করণের আওতায় আসতে পারিনি। অবিলম্বে ইবতেদায়ী মাদরাসা গুলোকে জাতীয় করণ করে মানবেতর জীবন যাপন করা মাদরাসা শিক্ষক পরিবারগুলোর যেন স্বস্তি ফেরানো হয়। সংগঠনের কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব ও নীলফামারী জেলা সভাপতি আবু মুসা ভুঁইঞা বলেন, দাবী বাস্তবায়নে ২০১৮সালের ১লা জানুয়ারী থেকে ১৬জানুয়ারী পর্যন্ত রাজধানী ঢাকায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে আমরা অনশন করেছিলাম। সে সময় শিক্ষা মন্ত্রনালয়ের সচিব আমাদের দাবী মেনে নেয়ার আশ্বাস দেন কিন্তু আজো সেই আশ্বাস আলোর মুখ দেখেনি। তিনি বলেন, দেশের ১৫১৯টি ইবতেদায়ী মাদরাসার শিক্ষক ২৩০০ থেকে ২৫০০ টাকা পেয়ে থাকেন কিন্তু রেজিস্ট্রেশন প্রাপ্ত শিক্ষকরা ৩৪ বছর ধরে বেতন ভাতা থেকে বঞ্চিত। আমরা দাবী জানাবো জাতির পিতার জন্মশত বার্ষিকীতে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা যেন আমাদের দাবী পূরণ করে নিয়ে আরো একটি ইতিহাস তৈরি করেন। পরে জাতীয়কণ ছাড়াও কোডবিহীন মাদরাসা গুলোকে বোর্ড কর্তৃক অন্তভুক্ত, নীতিমালা সংশোধন করে আলিম একজন শিক্ষকের পরিবর্তে এইচএসসি পাশ একজনকে অন্তভুক্ত, অফিস সহায়ক নিয়োগ, ট্রেনিং এর ব্যবস্থা, আসবাবসহ ভবন নির্মাণ ও স্থায়ী রেজিস্ট্রেশনের ব্যবস্থার দাবী জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী ও শিক্ষামন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করা হয় জেলা প্রশাসক মাধ্যম।




শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর









© All rights reserved © 2020 khoborpatrabd.com
Theme Developed BY ThemesBazar.Com