শনিবার, ২৩ জানুয়ারী ২০২১, ০৪:০৯ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম ::
জমে ওঠেছে সীতাকুন্ড পৌরসদর ব্যবসায়ী দোকান মালিক সমিতির নির্বাচন মতলব উত্তরে ৭ স্থানে ৩ দিনব্যাপী ১৪৪ ধারা জারি: শান্তিপূর্ণভাবে প্রথম দিন অতিবাহিত টঙ্গীতে ২৩ মামলার ওয়ারেন্টভুক্ত আসামীর আত্মসমর্পণ কুড়িগ্রামের চিলমারীতে জ্বালানী তেল সরবরাহ অব্যাহত এবং ভাসমান ডিপোকে শোর ডিপোতে রূপান্তরের দাবীতে মানববন্ধন ফুলবাড়ী উপজেলা প্রশাসনের সংবাদ সম্মেলন মনোহরদীতে এতিম ছাত্রদের মাঝে শুভসংঘের কম্বল বিতরণ বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভাংচুরের প্রতিবাদে মতলব উত্তরে বিক্ষোভ সমাবেশ তাহিরপুরে মাওলানা মোহাম্মদ জমির হোসাইনের দাফন সম্পন্ন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের অভিষেকের যে কবিকে নিয়ে আলোচনা তুঙ্গে গভীর রাতে রিজভীর শীতবস্ত্র বিতরণ




মালয়েশিয়ায় বৈধতা পাবে আড়াই লাখ প্রবাসী

খবরপত্র ডেস্ক:
  • আপডেট সময় শনিবার, ৫ ডিসেম্বর, ২০২০




বাংলাদেশীদের জন্য দ্বিতীয় শ্রমবাজার এশিয়ার ইউরোপ খ্যাত মালয়েশিয়ায় লাখ লাখ বাংলাদেশীকর্মী দেশটির বিভিন্ন খাতে বৈধভাবে সফলতার সাথে কাজ করে রেমিট্যান্স পাঠিয়ে দেশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল করেছে যুগ-যুগ ধরে। ২০১৬ এর পর চলতি বছরের নভেম্বর ১২ তারিখে আবার অবৈধদের বৈধতার ঘোষনাণা দিয়েছে দেশটির সরকার। বিশেষ করে ২০১৬ সালে বাংলাদেশী এবং অন্যন্যা দেশের শ্রমিকরা প্রতারণা ও বিভিন্ন কারনে বৈধ হতে পারেননি তারা এবার বৈধ হতে পারবেন। পূর্বের অভিজ্ঞতার আলোকে প্রতারনা জালিয়াতি রোধে সরকার এবার বিভিন্ন ইতিবাচক পদক্ষেপ ও নিয়েছে। গতকাল শনিবার কুয়ালালামপুরে সংবাদ সম্মেলনে দেশটির অভিবাসন বিভাগের মহাপরিচালক দাতোক সেরী খাইরুল দাযামি দাউদ বলেন, আমরা আশা প্রকাশ করছি এবারের বৈধকরণ রিকলিব্রেশন প্রক্রিয়ায় দুই থেকে আাড়াই লাখ শ্রমিক বৈধ করতে পারবো। দেশে বর্তমানে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা অবৈধ শ্রমিক হ্রাস করাই সরকারের মূল উদ্দেশ্য। বৈধকরণ প্রক্রিয়া সম্পর্কে খায়রুল দাজামি বিস্তারিত বলেন, এবার রিকলিব্রেশন ঘোষণার পর ইতিমধ্যেই ৪৭৮ নিয়োগদাতা কোম্পানির কাছ থেকে দুই হাজার আবেদন পেয়েছি। এটা অবিরাম চলবে ৬ মাস পর্যন্ত। এমন কি নিয়োগদাতারা চাইলে কারাবন্দী শ্রমিকদের শর্ত সাপেক্ষে বৈধকরণ করতে পারেন। এখানে সরাসরি অনলাইনে আবেদন গ্রহন করা হচ্ছে কোন এজেন্ট বা দালাল নিয়োগ করা হয়নি। মালিকগণ সরাসরি তাদের শ্রমিকদের নিয়োগ দিবেন এখানে কোন তৃতীয় পক্ষ নেই। তবে নিয়োগদাতারা কতজন শ্রমিক তাদের কোম্পানি তে নিয়োগ দিতে পারবেন তা শ্রম মন্ত্রনালয় থেকে অনুমোদন নিতে হবে।
সংবাদ সম্মেলনে তিনি আরো বলেন, আবেদন গৃহীত হওয়ার পর প্রথমে কর্মী নির্বাচন করে তাদের নির্ধারিত মেডিকেল সেন্টারে স্বাস্থ্য পরীক্ষা সম্পন্ন করে রিপোর্ট জমা দিতে হবে। তারপর নিয়োগকর্তাগণ ভিসার জন্য চুড়ান্ত আবেদন করতে পারবেন। এসময় যে সমস্ত ফি পরিশোধ করতে হবে তা হচ্ছে জনপ্রতি, রিকলিব্রেশন ফি ১৫ শত রিংগিত, লেভী কনস্ট্রাকশন ও ম্যানুফ্যাকচারিং এর জন্য ১৮৫০ রিংগিত, বৃক্ষরোপণ ও কৃষি খাতের জন্য ৬৪০ রিংগিত, পাস ফি ৬০ রিংগিত, ভিসা প্রসেসিং ফি ১২৫ রিংগিত এবং ৫ রিংগিত, জাতিভেদে আরো ২০ মালয়েশিয়ান রিংগিত পরিশোধ করতে হবে। যদি কোন শ্রমিক এই প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে ব্যর্থ হন তাহলে তাকে নিজ দেশে ফেরত পাঠানো হবে। এক্ষেত্রে তাদের দেশে ফেরত যাওয়ার বিমান টিকিট সহ ৫০০ রিংগিত জরিমানা দিতে হবে। তিনি আরো বলেন, ১৫ দেশের দূতাবাস প্রধানদের সাথে যোগাযোগ করেছি তারা আমাদের এই রিকলিব্রেশন প্রকল্প কে আন্তরিক ভাবে স্বাগত জানিয়েছেন। তাদের পক্ষ থেকে এবিষয়ে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে সহযোগিতা করার কথা ব্যক্ত করেছেন। এই শ্রমিক বৈধকরণ রিকলিব্রেশন কার্যক্রম টি ১২ নভেম্বর থেকে শুরু হয়ে আগামী ২০২১ সনের ২০শে জুন পর্যন্ত বিরতিহীন চলবে।




শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর









© All rights reserved © 2020 khoborpatrabd.com
Theme Developed BY ThemesBazar.Com