বৃহস্পতিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ০৪:২৬ অপরাহ্ন
শিরোনাম ::




মনোহরদীর নোায়াকান্দী মোড় হতে চালাকচর বাজার সড়কের বেহাল দশা: দ্রুত সংস্কারের দাবী

মাহবুবুর রহমান মনোহরদী (নরসিংদী) :
  • আপডেট সময় শনিবার, ২৩ জানুয়ারী, ২০২১




নরসিংদীর মনোহরদী উপজেলার গুরুত্বপূর্ণ নোায়াকান্দী মোড় হতে চালাকচর বাজার পর্যন্ত ছয় কিলোমিটার সড়কের বেহাল দশা। জনসাধারণকে পোহাতে হচ্ছে সীমাহীন দূর্ভোগ। দ্রুত সংস্কারের দাবী জানান, পথচারী, বিভিন্ন যানবাহন চালকসহ এলাকাবাসী। সরেজমিনে দেখা যায়, রাস্তাটির বিভিন্ন জায়গায় পিচ, ইট-পাথর ওঠে গিয়ে খানাখন্দ ও ছোট-বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। এসব গর্তের ফলে সড়কটি যেন মরণফাঁদে পরিণত হয়েছে। দূর্ভোগের সাথে প্রতিদিন সহ¯্রাধিক বিভিন্ন ধরণের যানবাহন চলাচল করছে এ রাস্তায়। আর প্রায়ই ঘটছে ছোট-বড় দূর্ঘটনা। রাস্তটির বেহালদশায় দূর্ভোগের শিকার হচ্ছেন হাজারো পথচারী। রোগী নিয়ে হাসপাতালে যেতে এবং শিক্ষার্থীদের স্কুল-কলেজে যেতে দূর্ভোগে পড়তে হচ্ছে। এলাকাবাসী মো. তারেক মিয়া, আরিফ হোসেন জানান, সড়কটি এ এলাকা হতে চালাকচর বাজার ও মনোহরদী উপজেলা সদরে যাওয়ার প্রধান রাস্তা। কিন্তু দূর্ভাগ্যবসত গত ২০০২ সালে রাস্তাটি পাকা হওয়ার পর ২০১৯ সালে চালাকচর বাজার হতে পশ্চিম চালাকচর দেড় কিলোমিটার ও দ্বিতীয়বার ২০২০ সালে পশ্চিম চালাকচর হতে পাওড়াবাড়ী পর্যন্ত এক কিলোমিটার রিপিয়ারিং করা হলেও নিন্মমানের কাজ করায় মাসও টেকেনি। পিচ উঠে সৃষ্টি হয়েছে খানাখন্দের এতে জীবনের ঝুঁকি নিয়েই চলাচল করতে হচ্ছে আমাদের। সড়কটি সংস্কারে কর্তৃপক্ষের নেই কোন উদ্যোগ। আরও বেশকজন বলেন, রাস্তার বেহাল অবস্থায় জনগনের চলাচলের যে ভোগান্তির সৃষ্টি হয়েছে তা একমাত্র ভুক্তভোগীরাই জানেন। তাই সড়কটির দ্রুত সংস্কারের দাবী জানান, পথচারী, বিভিন্ন যানবাহন চালকসহ এলাকাবাসী। নোায়াকান্দী, তারাকান্দী, শেখেরগাঁও, তাঁতারদী, দাইড়ের পাড়, চকতাতারদী ও কাপাসিয়ার বিভিন্ন অঞ্চল হতে আসা বেশ কয়েকজন পথচারী বলেন, চালাকচর একটি বড় বাজার হওয়ায় প্রতিদিন কৃষি ও ভোগ্যপণ্য খুচরা এবং পাইকারি বেচাকেনা করতে প্রতিদিন এই রাস্তা দিয়েই যাতায়াত করতে হয়। কিন্তু রাস্তাটির এমন বেহালদশায় চরম দূর্ভোগে চলাচল করতে হচ্ছে। এ বিষয়ে সিনজি চালক জাহিদুল ইসলাম, নজরুল ইসলাম বলেন, উন্নয়নের ছোঁয়া সারাদেশে লাগলেও নোয়াকান্দী থেকে চালাকচর যাবার ৬ কিলোমিটার রাস্তায় কোনো ছোঁয়া লাগেনি। চালাকচর বাজার থেকে দেড় কিলোমিটার ২০১৯ সালে রিপিয়ারিং করার ১ মাসের মাথায় পিচ গুলো উঠেযায়। কয়েক মাসপর আবার শুরু হল রিপিয়ারিং নামের তামাশা। পূণরায় আরও দেড় কিলোমিটার রিপিয়ারিং হলো ঠিকই কিন্তু টিকেনি ১ মাসের বেশি। জীবনের ঝুঁকি নিয়ে প্রতিদিন যাত্রী বহন করছি। নরসিংদী জেলা (সওজ) নির্বাহী প্রকৌশলী মো. মোফাজ্জল হায়দার বলেন, সড়কটি সংস্কারের জন্য (তালিকা ভুক্ত) প্রস্তাবনায় আছে। আশাকরি দ্রুত রাস্তাটি সংস্কার হবে।




শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর









© All rights reserved © 2020 khoborpatrabd.com
Theme Developed BY ThemesBazar.Com