বৃহস্পতিবার, ২২ অক্টোবর ২০২০, ০১:২৪ পূর্বাহ্ন




করোনা আবারও কমলো মৃত্যুর সংখ্যা

খবরপত্র ডেস্ক:
  • আপডেট সময় শুক্রবার, ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০




গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ২২ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে এখন পর্যন্ত করোনায় মারা গেলেন চার হাজার ৮৮১ জন। একই সময়ে সুস্থ হয়েছেন এক হাজার ৯২৩ জন, করোনা থেকে এখন পর্যন্ত মোট সুস্থ হয়েছেন দুই লাখ ৫২ হাজার ৩৩৫ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে শনাক্ত হয়েছেন এক হাজার ৫৪১ জন। এখন পর্যন্ত করোনায় সরকারি হিসাব অনুযায়ী মোট শনাক্ত হয়েছেন তিন লাখ ৪৫ হাজার ৮০৫ জন। গতকাল শুক্রবার (১৮ সেপ্টেম্বর) স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা স্বাক্ষরিত করোনাবিষয়ক নিয়মিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।
উল্লেখ্য, গতকাল বৃহস্পতিবার (১৭ সেপ্টেম্বর) দেশে করোনায় ৩৬ জনের মৃত্যুর খবর জানিয়েছিল স্বাস্থ্য অধিদফতর। তবে এর আগের দিন বুধবার (১৬ সেপ্টেম্বর) ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যুবরণ করেছিলেন ২১ জন। বৃহস্পতিবারের তুলনায় আজ শুক্রবার পুনরায় মৃত্যুর সংখ্যা কমলো। বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, ৯৫টি পরীক্ষাগারে গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা সংগৃহীত হয়েছে ১২ হাজার ৮১৪টি। নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ১২ হাজার ৭৩০টি। দেশে এখন পর্যন্ত মোট নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছেন ১৭ লাখ ৯৬ হাজার ৫০৯টি।
গত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের হার ১২ দশমিক ১১ শতাংশ এবং এখন পর্যন্ত শনাক্তের হার ১৯ দশমিক ২৫ শতাংশ। ২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৭২ দশমিক ৯৭ শতাংশ এবং শনাক্ত বিবেচনায় মৃত্যুর হার এক দশমিক ৪১ শতাংশ। গত ২৪ ঘণ্টায় মারা যাওয়া ২২ জনের মধ্যে পুরুষ ১৬ জন, আর নারী ছয় জন। এখন পর্যন্ত করোনা আক্রান্ত হয়ে মোট পুরুষ মারা গেছেন তিন হাজার ৮০৪ জন, আর নারী মারা গেছেন এক হাজার ৭৭ জন। শতকরা হিসেবে পুরুষ ৭৭ দশমিক ৯৩ শতাংশ এবং নারী ২২ দশমিক শূন্য সাত শতাংশ। ২২ জনের মধ্যে হাসপাতালে মারা গেছেন ২১ জন আর বাড়িতে মারা গেছেন একজন।
মারা যাওয়াদের বয়স বিবেচেনায় অধিদফতর জানিয়েছে, ৬০ বছরের বেশি বয়সের রয়েছেন ১২ জন, ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে রয়েছেন আট জন এবং ৪১ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে রয়েছেন দুই জন।
তাদের মধ্যে ঢাকা বিভাগে রয়েছেন ১৩ জন, চট্টগ্রাম বিভাগে তিন জন, সিলেট বিভাগে দুই জন এবং রাজশাহী, খুলনা, রংপুর ও ময়মনসিংহ বিভাগে একজন করে। গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হওয়া এক হাজার ৯২৩ জনের মধ্যে ঢাকা বিভাগে রয়েছেন ৮০৬ জন, চট্টগ্রাম বিভাগে ২৩৭ জন, রংপুর বিভাগে ৬৫ জন, খুলনা বিভাগে ২৫১ জন, বরিশাল বিভাগে ৩৭ জন, রাজশাহী বিভাগে ৪২৩ জন, সিলেট বিভাগে ১০০ জন এবং ময়মনসিংহ বিভাগে চার জন রয়েছেন। স্বাস্থ্য অধিদফতরের হেলথ ইমার্জেন্সি অ্যান্ড অপারেশন সেন্টার ও কন্ট্রোল রুমের তথ্য থেকে জানা যায়, গত ২৪ ঘণ্টায় কোয়ারেন্টিনে নতুন করে যুক্ত হয়েছেন এক হাজার ৩৬৬ জন, আর ছাড়া পেয়েছেন এক হাজার ৪১৩ জন। এখন পর্যন্ত কোয়ারেন্টিনে যুক্ত হয়েছেন পাঁচ লাখ ২১ হাজার ৭৯৬ জন, আর ছাড়া পেয়েছেন চার লাখ ৭৪ হাজার ১৫২ জন। বর্তমানে কোয়ারেন্টিনে আছেন ৪৭ হাজার ৬৪৪ জন।
গত ২৪ ঘণ্টায় আইসোলেশনে যুক্ত হয়েছেন ২৭৭ জন, আর ছাড়া পেয়েছেন ৫৪০ জন। এখন পর্যন্ত আইসোলেশনে যুক্ত হয়েছেন ৭৮ হাজার ৪১৭ জন, ছাড়া পেয়েছেন ৬১ হাজার ৪৯৫ জন। বর্তমানে আইসোলেশনে আছেন ১৬ হাজার ৯২২ জন।

করোনায় আরো ২২ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ১৫৪১, পরীক্ষা ১২৭৩০:
করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় আরো ২২ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে দেশে করোনায় আক্রান্ত হয়ে চার হাজার ৮৮১ জনের মৃত্যু হলো। এ ছাড়া দেশে নতুন করে আরো এক হাজার ৫৪১ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে দেশে মোট তিন লাখ ৪৫ হাজার ৮০৫ জন করোনায় আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছে। শুক্রবার (১৮ সেপ্টেম্বর) দুপুরে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়েছে। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় ৯৫টি ল্যাবে নমুনা সংগ্রহ ও পরীক্ষা করা হয়েছে। ২৪ ঘণ্টায় ১২ হাজার ৮১৪টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়। এর মধ্যে ১২ হাজার ৭৩০টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে।
বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা থেকে সুস্থ হয়েছে এক হাজার ৯২৩ জন। দেশে এ নিয়ে সর্বমোট সুস্থ হয়েছে দুই লাখ ৫২ হাজার ৩৩৫ জন। এ ছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত ২২ জনের মধ্যে পুরুষ ১৬ ও নারী ছয়জন। এ নিয়ে করোনায় মোট তিন হাজার ৮০৪ জন পুরুষের মৃত্যু হয়েছে এবং নারী মারা গেছে এক হাজার ৭৭ জন। বয়স বিবেচনায় মৃতদের ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে দুজন, ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে আটজন এবং ষাটোর্ধ্ব ১২ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় মৃতদের মধ্যে ঢাকা বিভাগে ১৩ জন, চট্টগ্রাম বিভাগে তিনজন, রাজশাহী বিভাগে একজন, খুলনা বিভাগে একজন, সিলেট বিভাগে দুজন, রংপুর বিভাগে একজন ও ময়মনসিংহ বিভাগে একজন রয়েছে। মৃত ২২ জনের মধ্যে ২১ জন হাসপাতালে আর একজন বাড়িতে মারা গেছেন।
গত ৮ মার্চ দেশে প্রথম করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয় বলে জানায় সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান (আইইডিসিআর)। আর ১৮ মার্চ প্রথম একজনের মৃত্যুর সংবাদ জানানো হয়। এরপর গত ১৪ এপ্রিল ৩৮তম দিনে কোভিড-১৯ রোগীর সংখ্যা এক হাজারে দাঁড়ায়। গত বছরের ডিসেম্বরে চীনের হুবেই প্রদেশের উহান শহরে প্রথম দেখা দেওয়া প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস বাংলাদেশসহ বিশ্বের ২১৩টি দেশ, অঞ্চল এবং দুটি আন্তর্জাতিক প্রমোদতরীতে ছড়িয়েছে। গত ১১ মার্চ করোনাভাইরাস সংকটকে মহামারি ঘোষণা করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা।




শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর









© All rights reserved © 2020 khoborpatrabd.com
Theme Developed BY ThemesBazar.Com