শনিবার, ১৮ মে ২০২৪, ০২:০৮ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম ::
বিশ্বমানের টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি সেবা নিশ্চিত করতে সংশ্লিষ্ট সকলকে এগিয়ে আসতে হবে : রাষ্ট্রপতি রাসূল (সা.)-এর সীরাত থেকে শিক্ষা নিয়ে দৃঢ় শপথবদ্ধ হয়ে সামনের দিকে এগিয়ে যেতে হবে—ড. রেজাউল করিম চৌদ্দগ্রামে বাস খাদে পড়ে নিহত ৫, আহত ১৫ চাহিদার চেয়ে ২৩ লাখ কোরবানির পশু বেশি আছে : মৎস্য ও প্রাণিসম্পদমন্ত্রী রাজনীতিবিদেরা অর্থনীতিবিদদের হুকুমের আজ্ঞাবহ হিসেবে দেখতে চান: ফরাসউদ্দিন নতজানু বলেই জনগণের স্বার্থে যে স্ট্যান্ড নেয়া দরকার সেটিতে ব্যর্থ হয়েছে সরকার মালয়েশিয়ার হুমকি : হামাস নেতাদের সাথে আনোয়ারের ছবি ফেরাল ফেসবুক হামাসের অভিযানে ১২ ইসরাইলি সেনা নিহত আটকে গেলো এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ের অর্থ ছাড় গাজানীতির প্রতিবাদে বাইডেন প্রশাসনের ইহুদি কর্মকর্তার লিলির পদত্যাগ

ভৈরব ব্রহ্মপুত্র নদে অষ্টমী স্নান উৎসব

আবদুর রউফ (ভৈরব) কিশোরগঞ্জ
  • আপডেট সময় মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল, ২০২৪

এবারও ভৈরব পৌর এলাকার পঞ্চবটি গ্রামের ব্রহ্মপুত্র নদে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের অষ্টমী স্নান উৎসব পালিত হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার সূর্যোদয়ের আগে থেকেই সনাতন ধর্মের নারী- পুরুষ শিশু বৃদ্ধ সহ সকল শ্রেণী ও বয়সী হাজার হাজার দর্শনার্থী স্নান উৎসবে যোগ দেয়। ঢাক ঢোল পিটিয়ে, ফল মোমবাতি আগরবাতি, চাল, ডাল সহ বিভিন্ন উপকরণ নিয়ে উৎসবে আসে দর্শনার্থীরা। এ ছাড়াও প্রসাদ বিতরন, ব্রাহ্মণদের দক্ষিণা প্রদান, প্রার্থণা করা । চট্টগ্রাম থেকে আগত বন্যা রানী মোদক(১৯) সহ অনেকেই নদের পাড়ে বাস শ্রীমদ্ভগবদ গীতা পাঠ করতে দেখা যায়। এছাড়াও হাতে তিলের জল, ফুল দুর্বাঘাস নিয়ে স্নাননের পাশাপাশী প্রার্থণায় মন দিচ্ছে। ইচ্ছা পূরণে নদে ফলে ছুড়ে দিচ্ছে। তিলক গ্রহনসহ শতাধিক পসরায় স্বর্গীয় পিতা মাতার নামে চাল, ডাল ও টাকা দেয়া সহ তর্পন দানে মনযোগ দিতে দেখা যায়। উৎসবকে কেন্দ্র করে নদের পাড়ে বিভিন্ন দোকান ও ষ্টল বসেছে। এ সব ষ্টলে খৈ, মন্ডা, মাটির তৈরী মূর্তি পুতুল, হাঁড়ি বাঁশিসহ বিভিন্ন জিনিস বিক্রী হয়েছে। গ্রামের সমীর বর্মন(৭০) বলেন, আমাদের পূর্বপুরুষগণ এখানে স্নান উৎসব করে আসছে। বাংলাদেশে অন্যান্য জায়গার মতো ভৈরবেও স্নান উৎসব চলছে শতাধিক বছর ধরে। এতে ভৈরব সহ পাশ্বর্বতী জেলার লোকজনও এ উৎসবে ছুটে আসে। দূরের অনেকে নৌকা রিজার্ভ নিয়ে স্নান উৎসবে অংশ গ্রহন করেছে। ভৈরব গোপাল জিউর মন্দিরের সুজন চক্রবর্তী জানান- সুন্দর পরিবেশ ও ঘাট না থাকায় আগত দর্শনার্থীরা কষ্ট করে উৎসব পালন করে থাকে। ঘাট নির্মাণ করার দাবী দীর্ঘ দিনের।




শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর









© All rights reserved © 2020 khoborpatrabd.com
Theme Developed BY ThemesBazar.Com