শুক্রবার, ১৭ মে ২০২৪, ১২:৪৭ অপরাহ্ন
শিরোনাম ::
বিশ্বমানের টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি সেবা নিশ্চিত করতে সংশ্লিষ্ট সকলকে এগিয়ে আসতে হবে : রাষ্ট্রপতি রাসূল (সা.)-এর সীরাত থেকে শিক্ষা নিয়ে দৃঢ় শপথবদ্ধ হয়ে সামনের দিকে এগিয়ে যেতে হবে—ড. রেজাউল করিম চৌদ্দগ্রামে বাস খাদে পড়ে নিহত ৫, আহত ১৫ চাহিদার চেয়ে ২৩ লাখ কোরবানির পশু বেশি আছে : মৎস্য ও প্রাণিসম্পদমন্ত্রী রাজনীতিবিদেরা অর্থনীতিবিদদের হুকুমের আজ্ঞাবহ হিসেবে দেখতে চান: ফরাসউদ্দিন নতজানু বলেই জনগণের স্বার্থে যে স্ট্যান্ড নেয়া দরকার সেটিতে ব্যর্থ হয়েছে সরকার মালয়েশিয়ার হুমকি : হামাস নেতাদের সাথে আনোয়ারের ছবি ফেরাল ফেসবুক হামাসের অভিযানে ১২ ইসরাইলি সেনা নিহত আটকে গেলো এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ের অর্থ ছাড় গাজানীতির প্রতিবাদে বাইডেন প্রশাসনের ইহুদি কর্মকর্তার লিলির পদত্যাগ

জামালপুরে বীর মুক্তিযোদ্ধার বসতভিটা বেদখলের অভিযোগ

আবুল কাশেম জামালপুর
  • আপডেট সময় মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল, ২০২৪

জামালপুর সদর উপজেলার বাঁশচড়া ইউনিয়নের বটতলা এলাকায় বীরমুক্তিযোদ্ধা পরিবারের বসতভিটা বেদখল চেষ্টার অভিযোগ করেছে ভুক্তভোগী পরিবার। মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের এ অভিযোগ এলাকার আব্দুর রাজ্জাক ও শরিফুল ইসলামের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় নুরুন্দি পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রে সম্প্রতি অভিযোগ হয়েছে। অভিযোগ সুত্র জানায়,বটতলা মৌজার সাবেক ৩৮৯ দাগের ৫১শতাংশ জমি বীরমুক্তিযোদ্ধা পরিবারের হাসেন আলীসহ তার পরিবাররা এলাকার তাহের আলীর কণ্যাদের থেকে ১৯৯৫-৯৯সালে ক্রয় করে নেন।পরে ২০০৫ সালে একই মৌজা থেকে আরও ৩১ শতাংশ জমি খ তফসিলের দেখিয়ে ৩১হাজার টাকার বিনিময়ে তাহের আলীর ছেলে শফিকুল ইসলাম ওরফে সাধনা,বীরমুক্তিযোদ্ধা পরিবারদের স্ট্যাম্প করে দখল বুঝিয়ে দেন তাদের।পরে নালিশীয় ৩১শতাংশের স্ট্যাম্প করে দেয়া এই জমি থেকে ১০শতাংশসহ আরও কিছুু জমি ২০২৪ সালে শফিকুল ইসলাম সাধনা এলাকার আব্দুর রাজ্জা ও শরিফুল ইসলামের নিকট বিক্রি করে দিয়ে বীরমুক্তিযোদ্ধা পরিবারকে সমস্যায় ফেলেন। এ ব্যাপারে বীরমুক্তিযোদ্ধা পরিবারের ওয়াজেদ আলী বলেন, শফিকুল ইসলাম ওরফে সাধনা, এলাকার আব্দুর রাজ্জাক ও শরিফুল ইসলামদের কাছে আমাদের স্ট্যাম্প করে দেয়া জমি বিক্রি করে দিয়ে পুরো পরিবারকে হয়রানি করছেন।আমরা প্রশাসনের কাছে এর বিচার চাই। এ ব্যাপারে বাঁশচড়া ইউনিয়নের ৮ নং ওয়ার্ডের সদস্য শরিফুল ইসলাম বলেন,আমরা দালিলিক প্রমানাদি নিয়েই জমি কিনেছি,আমাদের কোন ভুল নেই। এখন বিষয়টির সমাধান দিতে পারে জমির দাতা শফিকুল ইসলাম ওরফে সাধনা। এ ব্যাপারে নুরুন্দি পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ ইন্সপেক্টর নুর মোহাম্মদ বলেন,এ ঘটনায় উভয় পক্ষের অভিযোগ পেয়ে তদন্ত কেন্দ্রের এসআই মোহাম্মদ আলীকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে।বিষয়টি তিনি তদন্ত করে একটি সুরাহা দেবে বলে জানান তিনি।




শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর









© All rights reserved © 2020 khoborpatrabd.com
Theme Developed BY ThemesBazar.Com