রবিবার, ১৪ জুলাই ২০২৪, ০১:৪৫ অপরাহ্ন

ঈদের আগে সাড়ে ১২ হাজার কোটি টাকা মূলধন হারালো ডিএসই

সাদেক মাহমুদ পাভেল:
  • আপডেট সময় শনিবার, ১৫ জুন, ২০২৪

আসন্ন ২০২৪-২৫ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটে মূলধনী আয়ের ওপর কর আরোপের প্রস্তাব করা হয়েছে। এতে গত সপ্তাহের প্রথম তিন কার্যদিবসে বড় দরপতন হয় দেশের শেয়ারবাজারে। ঈদের আগের সপ্তাহে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) বাজার মূলধন কমে গেছে সাড়ে ১২ হাজার কোটি টাকার ওপরে। একই সঙ্গে কমেছে সবকয়টি মূল্যসূচক ও লেনদেন। ফলে মলিন মুখেই ঈদ কাটবে বিনিয়োগকারীদের। গত সপ্তাহজুড়ে ডিএসইতে লেনদেনে অংশ নেওয়া মাত্র ৫৪টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট দাম বাড়ার তালিকায় নাম লিখিয়েছে। বিপরীতে দাম কমেছে ৩২৩টির। এছাড়া ১৭টির দাম অপরিবর্তিত রয়েছে।
অধিকাংশ প্রতিষ্ঠানের দাম কমায় সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসের লেনদেন শেষে ডিএসইর বাজার মূলধন দাঁড়িয়েছে ৬ লাখ ৩৩ হাজার ৫৯৩ কোটি টাকা। আগের সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসে যা ছিল ৬ লাখ ৪৬ হাজার ৪৭৭ কোটি টাকা। অর্থাৎ সপ্তাহের ব্যবধানে ডিএসইর বাজার মূলধন কমেছে ১২ হাজার ৮৮৪ কোটি টাকা বা এক দশমিক ৯৯ শতাংশ।
এ অবস্থায় ডিএসইর প্রধান মূল্যসূচক ডিএসইএক্স কমেছে ১১৯ দশমিক ৫১ পয়েন্ট বা ২ দশমিক ২৮ শতাংশ। অপর দুই সূচকের মধ্যে বাছাই করা ভালো কোম্পানি নিয়ে গঠিত ডিএসই-৩০ সূচক কমেছে ৩৬ দশমিক শূন্য ৯ পয়েন্ট বা এক দশমিক ৯৪ শতাংশ। এছাড়া ইসলামি শরিয়াহ ভিত্তিতে পরিচালিত কোম্পানি নিয়ে গঠিত ডিএসই শরিয়াহ সূচক ২৮ দশমিক ৭০ পয়েন্ট বা ২ দশমিক ৫২ শতাংশ কমেছে। মূল্যসূচক কমার পাশাপাশি কমেছে লেনদেনের গতিও। সপ্তাহের প্রতি কার্যদিবসে ডিএসইতে গড়ে লেনদেন হয়েছে ৩৭৬ কোটি ৪৫ লাখ টাকা। আগের সপ্তাহে প্রতিদিন গড়ে লেনদেন হয় ৪৫১ কোটি ৬০ লাখ টাকা। অর্থাৎ প্রতি কার্যদিবসে গড় লেনদেন কমেছে ৭৫ কোটি ১৫ লাখ টাকা বা ১৬ দশমিক ৬৪ শতাংশ।
সপ্তাহজুড়ে ডিএসইতে মোট লেনদেন হয়েছে এক হাজার ৮৮২ কোটি ২৭ লাখ টাকা। আগের সপ্তাহে মোট লেনদেন হয় ২ হাজার ২৫৮ কোটি ২ লাখ টাকা। সে হিসাবে মোট লেনদেন কমেছে ৩৭৫ কোটি ৭৫ লাখ টাকা।
গত সপ্তাহে ডিএসইতে টাকার অঙ্কে সব থেকে বেশি লেনদেন হয়েছে বিকন ফার্মার শেয়ার। প্রতিদিন গড়ে কোম্পানিটির শেয়ার লেনদেন হয়েছে ২৮ কোটি ৪৭ লাখ টাকার, যা মোট লেনদেনের ৭ দশমিক ৫৬ শতাংশ। দ্বিতীয় স্থানে থাকা লাভেলো আইসক্রিমের শেয়ার প্রতিদিন গড়ে লেনদেন হয়েছে ১৫ কোটি টাকার। প্রতিদিন গড়ে ১৩ কোটি ৯০ লাখ টাকা লেনদেনের মাধ্যমে তৃতীয় স্থানে রয়েছে এশিয়াটিক ল্যাবরেটরিজ।
এছাড়া লেনদেনের শীর্ষ দশ প্রতিষ্ঠানের তালিকায় রয়েছে- সি পার্ল বিচ রিসোর্ট, ইউনিলিভার কনজ্যুমার কেয়ার, আলিফ ইন্ডাস্ট্রিজ, রূপালী লাইফ ইন্স্যুরেন্স, ব্রিটিশ আমেরিকান টোবাকো, স্কয়ার ফার্মাসিউটিক্যালস এবং সেন্ট্রাল ফার্মাসিউটিক্যালস।




শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর









© All rights reserved © 2020 khoborpatrabd.com
Theme Developed BY ThemesBazar.Com