রবিবার, ২৯ নভেম্বর ২০২০, ০৩:৩৫ পূর্বাহ্ন




বিকাশ অ্যাপে যুক্ত হলো নতুন যেসব সেবা

আইটি ডেস্ক:
  • আপডেট সময় শুক্রবার, ২০ নভেম্বর, ২০২০




প্রতিদিনের ছোট-বড় অসংখ্য আর্থিক লেনদেন যেকোনো সময় যেকোনো স্থান থেকে মোবাইলের মাধ্যমে করা যায়। এ সুযোগ তৈরি করে দিয়েছে মোবাইল আর্থিক সেবা বিকাশ। বিকাশের কল্যাণে মানিব্যাগের প্রয়োজন এখন কমতে শুরু করেছে। এখন মোবাইল সাথে থাকলেই প্রতিদিনের ছোট-বড় আর্থিক লেনদেন সহজেই করা সম্ভব। তাই তো সম্প্রতি বিকাশ অ্যাপে যুক্ত হয়েছে নতুন অনেক সেবা এবং ফিচার। আসুন জেনে নেই সেসব ফিচার সম্পর্কে-নতুন যা যুক্ত হলো: বিকাশ অ্যাপ আপডেট হলে তাতে নতুন কী কী ফিচার যুক্ত হলো, তা এখন গ্রাহক সহজেই বুঝতে পারছেন। একটি ডট চিহ্ন থাকছে নতুন ফিচারের পাশে। যেমন ধরা যাক, অগ্রণী ব্যাংকে টাকা লেনদেন সেবা চালু হয়েছে একটি আপডেটে। গ্রাহক তার অ্যাড মানি অপশনের পাশে একটি ডট চিহ্ন দেখছেন। ফলে এখন নতুন সেবা বা ফিচার যুক্ত হওয়ার সাথে সাথেই সে সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পারছেন গ্রাহক।
ডিসকভার বিকাশ: কেবল ডটই নয়, বিকাশ অ্যাপের মেন্যুতে যুক্ত হয়েছে ডিসকভার বিকাশ অপশন। এখানে ক্লিক করেও গ্রাহক বিকাশে নতুন কী ফিচার যুক্ত হয়েছে, তা জানতে পারছেন সহজেই। এছাড়াও এখানে রয়েছে বেশকিছু টিউটোরিয়াল ভিডিও। যা দেখে গ্রাহক বিভিন্ন বিকাশ সেবার ব্যবহার শিখে নিতে পারছেন।
তিতাস গ্যাসের বিল: তিতাস গ্যাসের বিল এখন বিকাশের মাধ্যমে পরিশোধ করা যাচ্ছে। প্রতিমাসে নির্দিষ্ট অঙ্কের বিল পরিশোধ করে তিতাসের সেবা ব্যবহার করেন যে গ্রাহকরা; তারা এখন ঘরে বসেই বিকাশ দিয়ে তিতাসের বিল পরিশোধ করতে পারবেন। উৎসে আয়কর কর্তন হয়, এমন মিটার ব্যবহারকারী গ্রাহকরা ছাড়া বাকি সব মিটার ব্যবহারকারী গ্রাহকরা তিতাসের গ্যাস বিল বিকাশে পরিশোধ করতে পারবেন।
বিকাশ অ্যাপের নিরাপত্তা: বিকাশ অ্যাপের নিরাপত্তা আরও সুচারু করতে যুক্ত হয়েছে অ্যান্ড্রয়েড ভেরিফিকেশন কোড কনসেন্ট। এ পদ্ধতির কারণে একজন গ্রাহক অ্যাপ ডাউনলোড করে বিকাশ নম্বর দেওয়ার পর যে ভেরিফিকেশন কোড পাবেন, তা ‘অ্যালাউ’ বাটন ক্লিক করে কনসেন্ট দিতে হবে। ফলে যে হ্যান্ডসেটে বিকাশ নম্বরটি ব্যবহার হচ্ছে, সিমটি থাকতে হবে কেবল সেই হ্যান্ডসেটেই। ফলে প্রতারণার উদ্দেশে অন্য ডিভাইসে বিকাশ অ্যাপ অ্যাক্টিভেট করার সুযোগ বন্ধ হলো। আইওএস ব্যবহার করেন যে বিকাশ গ্রাহক, তাদের জন্যও যুক্ত হয়েছে একটি নতুন ভেরিফিকেশন স্টেপ। সার্বিকভাবে বিকাশ অ্যাপের নিরাপত্তা আরও সুসংহত হলো।
আমার কিউআর: প্রতিজন বিকাশ গ্রাহকের জন্য অনন্য ফিচার ‘আমার কিউআর’। বিকাশ অ্যাপে যেখানে গ্রাহকের ছবি থাকে সেখানেই গ্রাহক পেয়ে যাচ্ছেন তার স্বতন্ত্র কিউআর কোডটি। গ্রাহক তার কিউআর কোডটি ডাউনলোড করে বা সরাসরি অ্যাপ থেকেই আরেকজন বিকাশ গ্রাহককে দেখাতে পারবেন, যিনি কোডটি স্ক্যান করে খুব সহজেই সেন্ড মানি সেবা ব্যবহার করতে পারবেন। যেহেতু কিউআর কোড স্ক্যান করে তথ্য নিয়ে সেন্ড মানি করা হচ্ছে, ফলে এ পদ্ধতিতে ভুল নম্বরে টাকা যাওয়ার কোনো সম্ভাবনা নেই। গ্রাহকরা এ কিউআর কোডের অনেক রকমের ব্যবহার করতে পারবেন। যেমন- বন্ধুরা মিলে হয়তো কোথাও বেড়াতে যাবেন বা কাউকে সাহায্য করবেন। একজনের বিকাশ অ্যাকাউন্টে টাকা সংগ্রহ হচ্ছে। সেক্ষেত্রে যে অ্যাকাউন্টে টাকা সংগ্রহ হচ্ছে তার কিউআর কোডটি ফেসবুক বা অন্য সামাজিক যোগাযোগের গ্রুপে শেয়ার করে রাখলেন। যারা টাকা পাঠাবেন তারা খুব সহজেই এই কিউআর কোডটি স্ক্যান করে টাকা পাঠিয়ে দিতে পারবেন।
পে বিল টিউটোরিয়াল: ছোট অঙ্কের টাকা কিন্তু পরিশোধে বড় ঝামেলা হলো ইউটিলিটি সেবার বিল পরিশোধ। সারাদেশের সবগুলো বিদ্যুৎ বিতরণ কোম্পানিসহ গ্যাস, পানি, সিটি কর্পোরেশন ও অসংখ্য সেবার বিল যেকোনো সময় যেকোনো স্থান থেকে ঝামেলা ছাড়াই পরিশোধ করে নিরবচ্ছিন্ন সেবা ব্যবহার করতে পারেন গ্রাহক। গ্রামের একেবারে সাধারণ মানুষ থেকে শুরু করে শহরের সুবিধাভোগী শ্রেণিসহ সব বয়সের গ্রাহক বিকাশ সেবা ব্যবহার করেন। সব গ্রাহকই যেন সহজে পে বিল সেবা ব্যবহার করতে পারেন, সেই লক্ষ্যেই বিকাশ অ্যাপে যুক্ত করা হয়েছে পে বিল টিউটোরিয়াল। একজন গ্রাহক পল্লী বিদ্যুতের বিল পরিশোধ করবেন। তার তথ্যগুলো দেওয়ার পরে প্রয়োজনে ভিডিওটিতে বিল পরিশোধের পদ্ধতিটি দেখে নিতে পারবেন। এছাড়াও বিল কপি থেকে আসলে কোন নাম্বারটি অ্যাপে বসাতে হবে তাও সহজেই দেখে নেওয়া যাবে স্যাম্পল ছবি থেকে। ফলে কারো সাহায্য ছাড়াই যে কেউ বিল পরিশোধ সেবা উপভোগ করতে পারবেন। বিল পরিশোধের পর তার রশিদ সংরক্ষণের সুযোগ রয়েছে। বিকাশ অ্যাপে যুক্ত হয়েছে পরিবেশবান্ধব ডিজিটাল পে বিল রিসিট বা রশিদ, যা গ্রাহক খুব সহজেই সংরক্ষণ করতে পারবেন এবং প্রয়োজনের সময় খুব দ্রুত খুঁজে পাবেন ও ব্যবহার করতে পারবেন। এছাড়াও নিয়মিত বিলগুলোর অ্যাকাউন্ট তথ্য সেভ করে রাখার সুযোগ তো আছেই।
খাবারের অর্ডার: প্রিয় রেস্টুরেন্ট থেকে খাবার আনাতে অনেকেই প্রযুক্তি সেবা ব্যবহার করেন। এখন আর বাড়তি কোনো অ্যাপ ব্যবহার করতে হচ্ছে না। বার্গার কিং এবং পিজা হাট থেকে খাবারের অর্ডার দেওয়া যাচ্ছে বিকাশ অ্যাপ থেকেই। বিকাশ অ্যাপের মেনু থেকে ‘আরো’ অপশন ক্লিক করে ফুড নির্বাচন করে সহজেই কয়েক মুহূর্তে অর্ডার নির্বাচন করে পেমেন্ট সম্পন্ন করতে পারছেন গ্রাহক। এ তালিকায় আরও রেস্টুরেন্ট যুক্ত হবে।
টিকিট: বাংলাদেশ রেলওয়ে ও বিডিটিকিসের পাশাপাশি এখন বিকাশ অ্যাপে যুক্ত হয়েছে বাসবিডি, ফ্লাইট এক্সপার্ট ও গো জায়ান। গ্রাহকরা গো জায়ানের মাধ্যমে বিমানের টিকিট কাটা ও বিভিন্ন হোটেলের রুম বুকিং করতে পারবেন বিকাশ অ্যাপ থেকেই। এ ছাড়াও কোথাও না গিয়ে খুব সহজে ঘরে বসেই যেকোনো সময় গ্রাহকরা বাস, ট্রেন ও লে র টিকিটও কাটতে পারবেন।
গেম: বিকাশ কেবল আর্থিক লেনদেন নয়, গ্রাহকের বিনোদনেরও সঙ্গী হয়ে উঠেছে। অ্যাপের ‘আরো’ অপশন থেকে গেমস নির্বাচন করে বার্ড গেম এবং এড়ধসধ এধসবং খেলার সুযোগ পাচ্ছেন গ্রাহক, যা তার অবসর সময়কে আনন্দময় করে তুলবে।
ইন্স্যুরেন্স: বাড়তি সময় ব্যয় করে কোথাও না গিয়ে গ্রাহক এখন খুব সহজেই বিকাশ অ্যাপ থেকেই মিলভিক এবং কার্নিভাল অ্যাসিউর ইন্স্যুরেন্স’র মত জেনারেল এবং হেলথ ইন্স্যুরেন্সের সেবার কিস্তি বিকাশ অ্যাপেই দেওয়ার সুবিধা রয়েছে। ফলে গ্রাহকের জন্য এ সেবা নেওয়া খুবই সহজ। দেশের যেকোনো প্রান্ত থেকে যেকোনো সময় একজন বিকাশ গ্রাহক নিজের এবং পরিবারের নিরাপত্তায় এ সেবা নিতে পারবেন। বিকাশ অ্যাপেই সেবার কিস্তির পরিমাণ এবং সুবিধা পাওয়ার হার সম্পর্কেও জানতে পারবেন।
মোবাইল রিচার্জ অফার: সারাদেশের মোট মোবাইল রিচার্জের ২৫ শতাংশই বিকাশ ব্যবহার করে হয়। এ বিশাল সংখ্যক গ্রাহকের সুবিধা বিবেচনায় তাদের শ্রেষ্ঠ অফারটি দিতে নতুন ফিচার যুক্ত হয়েছে বিকাশ অ্যাপে। একজন গ্রাহক বিকাশ অ্যাপ দিয়ে ৫০ টাকা মোবাইল রিচার্জ করবেন। টাকার পরিমাণ দেওয়ার সাথে সাথেই তিনি ‘অফার দেখুন’ বাটনটি দেখতে পাবেন। এখানে ক্লিক করলে ৫০ টাকার আশেপাশের টাকার অঙ্কে কী কী অফার রয়েছে, তা দেখতে পাবেন গ্রাহক এবং নিজের প্রয়োজন অনুসারে শ্রেষ্ঠ অফারটি নেওয়ার সুযোগ পাবেন। কাক্সিক্ষত টাকায় সবচেয়ে ভালো অফারটি বেছে নেওয়ার সুযোগ দিতেই নতুন এ ফিচার যুক্ত হয়েছে।
রেফার-এ-ফ্রেন্ড: অসংখ্য সুবিধা সম্বলিত বিকাশ অ্যাপ ব্যবহার করে গ্রাহক তার প্রিয়জনকেও অ্যাপ ব্যবহারে উৎসাহিত করতে পারেন। বিকাশ অ্যাপে যুক্তে হয়েছে ‘রেফার-এ-ফ্রেন্ড’ অপশনটি। অ্যাপের ডানদিকের বিকাশ লোগোতে ক্লিক করে রেফার এ ফ্রেন্ড অপশনটি পাবেন গ্রাহক। এরপর ‘রেফার করুন’ এ ক্লিক করে অ্যাপের লিঙ্কটি যেকোনো মাধ্যম, যেমন- এসএমএস, ই-মেইল, ম্যাসেঞ্জার, হোয়াটস্অ্যাপ, ভাইবার, ইমো, ইত্যাদিতে শেয়ার করতে পারবেন।
গ্রাহকের শেয়ার করা লিংক দিয়ে প্রিয়জন বিকাশ অ্যাপে লগইন করলেই গ্রাহক পেয়ে যাবেন ২০ টাকা বোনাস এবং ওই ব্যবহারকারী অ্যাপে যেকোনো একটি ট্রানজেকশন করলেই লিঙ্ক শেয়ারকারী পাবেন আরও ৮০ টাকা বোনাস। যিনি প্রথমবার অ্যাপ ব্যবহার করছেন, তার জন্য প্রথম লগইনে থাকছে ২৫ টাকা বোনাস আর প্রথমবার ২৫ টাকা মোবাইল রিচার্জে পাবেন ৫০ টাকা ক্যাশব্যাক। অফারটি ৩১ ডিসেম্বর ২০২০ পর্যন্ত চলবে।




শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর









© All rights reserved © 2020 khoborpatrabd.com
Theme Developed BY ThemesBazar.Com