শুক্রবার, ০৫ মার্চ ২০২১, ০৪:২১ অপরাহ্ন




ঠাকুরগাঁওয়ে ধানবীজের মূল্য বৃদ্ধির দাবীতে বিএডিসি‘র চাষিদের মানববন্ধন

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি :
  • আপডেট সময় সোমবার, ২২ ফেব্রুয়ারী, ২০২১




বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন কর্পোরেশন (বিএডিসি) কর্র্তৃক আমন ধান বীজের সংগ্রহ মূল্য বাজার মূল্যের তুলনায় কম নির্ধারণ করার প্রতিবাদে ও মূল্য বৃদ্ধির দাবীতে ঠাকুরগাঁওয়ে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। সোমবার সকালে সমন্বিত চাষী ফোরামের ব্যানারে ঠাকুরগাঁওয়ের শিবগঞ্জস্থ বিএডিসি‘র অধিক বীজ উৎপাদন কেন্দ্রের সামনে ঘন্টা ব্যাপী মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশে বিএডিসির চুক্তিবদ্ধ শতাধিক চাষি অংশ গ্রহণ করে। চাষিদের দাবী আমন ধানকীজের সংগ্রহ মূল্য প্রতি কেজি (প্রত্যায়িত/মানঘোষিত) ৩৯ টাকা থেকে ৪৫ টাকা করতে হবে। অন্যথায় চাষিদের ধান ফেরত দিতে হবে বিএডিসিকে। এ সময় বক্তব্য রাখেন, ঠাকুরগাঁও বিএডিসি‘র সমন্বিত চাষী ফোরামের আহব্বায়ক ফাতিউল রারি তাজু, সদস্য নজরুল ইলাম, মোস্তাফিজুর রহমান,এমদাদুর রহমান, এন্তুজুল ইসলাম, ইমরান আলী প্রমূখ। বক্তারা বলেন, ঠাকুরগাঁওয়ে বিএডিসি অধিক বীজ উৎপাদন কেন্দ্র, কন্ট্রাক গ্রোর্য়াস ও আপৎ কালীন বীজ মজুদ কেন্দ্র মোট তিনটি জোনের আওতায় ৫শতাধিক চুক্তিবদ্ধ চাষির মাধ্যমে ধান, গম ও ভুট্রার বীজ উৎপাদন করে থাকে বিএডিসি। বীজ সংগ্রহ করার পরে বিএডিসি বীজের মূল্য নির্ধারণ করার কারণে অনেক সময় লোকশানের মুখে পড়তে হয় চাষিদের। এবছর বিএডিসি ধানবীজের সংগ্রহ মূল্য যা নির্ধারণ করেছে তার চেয়ে কেজিতে কমপক্ষে ৬ টাকা বৃদ্ধি অথবা ধান বীজ ফেরতের দাবী জানিয়েছেন চাষিরা। চুক্তিবদ্ধ আমন ধানবীজ চাষিরা বলেন, করোনা কালিন সময়ে সরকার চাষিদের বিভিন্ন ভাবে প্রর্নোদনা দিচ্ছে। তার পরেও সরকার সাধারণ চাষিদের মাধ্যমে এক ছটাকও ধান, চাল সংগ্রহ করতে পারেনি। বিএডিসির চাষিরা আগামীতে দেশে উৎপাদন অব্যাহত রাখতে আমন ধান বীজের কোন প্রকার কমতি না সে জন্য মানসম্মত ধান বীজ উৎপাদন করে সর্বরাহ করেছে বিএডিসিতে। অতচ বিএডিসি চাষিদের থেকে ধানবীজ সংগ্রহ করে মনগড়া দাম নির্ধারণ করেছে। এতে চাষিরা ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ায় রাস্তায়ে মেনেছে। দাম বৃদ্ধি না করলে বিএডিসির চাষিরা বীজ উৎপাদন বন্ধ রাখবে। আমন ধান কাটা থেকে শুরু করে বর্তমানেও বাজারে খাওয়ার ধানের কেজি ৩২-৩৩ টাকা বিক্রি হচ্ছে। বিএডিসি বিভিন্ন প্রক্রিয়ার পরে চাষিদের থেকে ধানবীজ সংগ্রহ করে বলে সেই টাকার সাথে ৩০ ভাগ টাকা যোগ বিএডিসি চাষিদের টাকা পরিশোধ করে থাকে। গত বছর এই সময়ে বাজারে আমন ধানের বাজার ছিল ২৪-২৫ টাকা আর বিএডিসি চাষিদের দিয়েছিল ৩৭ টাকা। করোনা কালে চাষিদের উৎপাদন খরচ বৃদ্ধি ও বাজারে বেশি দাম থাকার পরেও বিএডিসি কম মূল্য নির্ধারণ করায় চাষিরা বীজ উৎপাদনে অনাগ্রহী হচ্ছে। বিএডিসি সূত্রে জানাযায়, এ বছর ব্রিধান ৪৯, ব্রিধান ৫১, ব্রিধান ৭৫, ব্রিধান ৮০, ব্রিধান ৮৭ জাতের আমন ধানবীজের সংগ্রহ মূল্য (প্রত্যায়িত/মানঘোষিত) নির্ধারণ করেছে ৩৯ টাকা। চাষিদের দাবী ৪৫ টাকা প্রতি কেজি।




শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর









© All rights reserved © 2020 khoborpatrabd.com
Theme Developed BY ThemesBazar.Com