রবিবার, ২৮ নভেম্বর ২০২১, ০৫:২৭ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম ::
আগৈলঝাড়ায় সরকারি সম্পত্তি থেকে গাছ কর্তন, অবশেষে সমস্ত গাছ সিজ করল বন কর্মকর্তা আজ তৃতীয় ধাপে ফুলবাড়ী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন প্রেমের টানে মেক্সিকো থেকে জামালপুর লামায় অভিষেক ও সংবর্ধনা অনুষ্ঠান ছাতিম ফুল: যে ফুলের সুবাসে সুবাসিত হয় হেমন্তের রজনী অপরিণত নবজাতক শিশুকে জন্মের এক মাসের মধ্যে চিকিৎকদের কাছে আনতে হবে রায়গঞ্জে রোপা আমন ধান কাটা শুরু, ফলন এবং দাম ভাল জ্বালানী তেল ও গণপরিবহনে ভাড়া বৃদ্ধি এবং দ্রব্যমূল্য বাড়ায় প্রতিবাদে কুষকদলের লিফলেট বিতরন ঠাকুরগাঁওয়ে গ্রামবাসীর তাড়া খেয়ে মরল নীলগাই স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উপলক্ষে আরশিনগরে বর্ণাঢ্য আয়োজনের ঘোষণা




ঘুরে আসুন বাংলাদেশের সর্ববৃহৎ জলপ্রপাত মাধবকুন্ড

ফয়সাল মাহমুদ (বড়লেখা) মৌলভীবাজার:
  • আপডেট সময় সোমবার, ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০২১




প্রকৃতির সৌন্দর্যে বেষ্টিত অপরূপ লীলাভূমি মৌলভীবাজার জেলার বড়লেখা উপজেলায় অবস্থিত বাংলাদেশের একমাত্র সর্ববৃহৎ জলপ্রপাত মাধবকুন্ড। বাংলাদেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে প্রতিদিন অসংখ্য পর্যটকের সমাগম ঘটে এই মাধবকুন্ড জলপ্রপাত দেখতে। সারা বছরই দেশী বিদেশী পর্যটকের আনা গোনা লেগেই আছে এখানে। সুউচ্চ ২০০ফুট পাহাড় থেকে উপচে পড়া পানির দৃশ্য দেখে যে কারো ভালো লাগবে অবশ্যই। প্রেমিকদের নিকট প্রিয়ার বিদায় নেয়ার দৃশ্য, প্রিয়া যেন মাথার চুল এলিয়ে দুলিয়ে চলে যাচ্ছে দূর কোথায়। ইচ্ছে হবে পানির সাথে মিতালী করতে। পানি এত পরিষ্কার যে, ভাবতে আপনার বিস্ময়ের ভাব কাটবে না। কোথা থেকে এত পানি আসছে প্রচন্ড গতিতে, যে টিলার উপর থেকে পানি পড়ছে সেটা সম্পূর্ন পাথরের টিলা। ২০০ ফুট উচ টিলাটি কালো বর্নের পাথরের। নীচে রয়েছে অসংখ্য পাথর নানা প্রকার ভেদে। কুন্ডের ডানদিকে রয়েছে একটি গুহা যা পাথর বেষ্টিত। স্তানীয় ভাষায় গুহা কে কাব বলে। দেখলে মনে হয় এটা মানুষের তৈরী ,অথচ এটা প্রাকৃতিক ভাবেই সৃষ্টি হয়েছে। আশে-পাশের নৈসর্গিক দৃশ্য আর সবুজ চা-পাতাময় বাগানগুলো আপনার মন কেড়ে নিবে। এখানে রয়েছে ইকো পার্ক। মাধবকুন্ড কে আকর্ষনীয় করে তোলার জন্য জেলা পরিষদের রেষ্ট হাউস, পিকনিক সেড ও গাড়ী পার্কিং জায়গা রয়েছে। দেশের প্রথম ইকোপার্ক, মাধবকুন্ড জলপ্রপাতের আশপাশ এলাকার চা-বাঁগান, পাঁহাড়ি টিলা ও দেশী-বিদেশী পর্যটক ও ভ্রমণ পিপাসুদের দিন দিন কাছে টানছে। ঢাকা থেকে সড়ক পথে গেলে আপনি শ্রীমঙ্গল , মৌলভীবাজার হয়ে যেথে পারেন। সময় লাগবে মাএ ৭/৮ ঘন্টা। যদি যান , ভ্রমন টি অবশ্যই আপনার স্মৃতি পাতায় আনন্দের স্মৃতিকথা হয়ে রইবে চিরকাল।




শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর









© All rights reserved © 2020 khoborpatrabd.com
Theme Developed BY ThemesBazar.Com