শনিবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২২, ০৮:১০ পূর্বাহ্ন

এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা: ‘প্রশ্ন সহজ হয়েছে, পরীক্ষাও ভালো হয়েছে’

খবরপত্র ডেস্ক:
  • আপডেট সময় রবিবার, ৬ নভেম্বর, ২০২২

করোনা মহামারি ও বন্যার কারণে কয়েক দফা পিছিয়ে সাত মাস পর গতকাল রোববার (৬ নভেম্বর) থেকে শুরু হয়েছে এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা। পরীক্ষা শেষে অনেকটা স্বস্তি নিয়েই কেন্দ্র থেকে বেরিয়েছেন পরীক্ষার্থীরা। শিক্ষার্থীরা বলছেন, প্রশ্ন সহজ হওয়ায় পরীক্ষা অনেকটাই ভালো হয়েছে। গতকাল রোববার (৬ নভেম্বর) দুপুর ১টায় রাজধানীর বেগম বদরুন্নেসা সরকারি মহিলা কলেজ কেন্দ্র থেকে বেরিয়ে এমনটাই জানান পরীক্ষার্থীরা। করোনা পরবর্তী সময়ে অনুষ্ঠিত হওয়ায় এসব পরীক্ষার সময় ও বিষয় কমিয়েছে শিক্ষাবোর্ডগুলো। বৈশ্বিক এই পরিস্থিতিতেও শিক্ষার্থীরা স্বস্তি নিয়ে এসেছেন পরীক্ষা কেন্দ্র থেকে।
বেগম বদরুন্নেসা সরকারি মহিলা কলেজ কেন্দ্র পরীক্ষায় অংশ নেওয়া সৈয়দ মাইন উদ্দিন বলেন, পরীক্ষার প্রস্তুতি ভালোই নিয়েছিলাম, পরীক্ষাও ভালো হয়েছে। জেরিন আক্তার নামে অপর এক শিক্ষার্থী জাগো নিউজকে বলেন, আলহামদুলিল্লাহ প্রশ্ন সহজ হয়েছে, পরীক্ষাও ভালো হয়েছে। বাংলা পরীক্ষা একটু বেশি লিখতে হয়েছে। আবদুল্লাহ বিন জাফর নামের এক শিক্ষার্থী জাগো নিউজকে বলেন, সময় মেইনটেন করা একটু সমস্যা হয়েছে। শেষ দিকে তাড়াহুড়ো করে লিখতে হয়েছে। পুরো দুই ঘণ্টাই একটু মেইনটেন করা সমস্যা হয়ে দাঁড়ায়। আশরাফুল ভূঁইয়া বলেন, সময় যেহেতু কম, প্রশ্নগুলো যদি একটু সহজ হয় সামনের পরীক্ষাগুলো আশা করি ভালো হবে। পরীক্ষা পিছিয়ে যাওয়ায় একটু সমস্যা হয়েছিল প্রস্তুতি নিতে। এ বছর এইচএসসি পরীক্ষায় দুই হাজার ৬৪৯টি কেন্দ্রে ১২ লাখ তিন হাজার ৪০৭ পরীক্ষার্থী অংশ নিচ্ছেন। এরমধ্যে ছয় লাখ ২২ হাজার ৭৯৬ ছাত্র এবং পাঁচ লাখ ৮০ হাজার ৬১১ জন ছাত্রী।
এইচএসসির প্রথম দিনে অনুপস্থিত ২৩ হাজার, বহিষ্কার ৪৪: বাংলা প্রথম পত্রের মাধ্যমে সারাদেশে শুরু হয়েছে এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা। রোববার (৬ নভেম্বর) বেলা ১১টা থেকে এ পরীক্ষা শুরু হয়ে দুপুর ১টা পর্যন্ত চলে। পরীক্ষার প্রথম দিন দেশের ১১ শিক্ষা বোর্ডে অনুপস্থিত ছিল ২৩ হাজার ৪৭ জন। অসাধু পন্থা অবলম্বন করায় বহিষ্কার করা হয়েছে ৪৪ জনকে।
গতকাল রোববার সন্ধ্যায় শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কন্ট্রোল রুম থেকে জানানো হয়েছে এ তথ্য।
শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের তথ্যে জানা গেছে, ঢাকা শিক্ষা বোর্ডে ২৮৫টি কেন্দ্রে মোট ২ লাখ ৭৩ হাজার ৭০ জনের মধ্যে ৩ হাজার ৫০৯ জন অনুপস্থিত ছিল। চট্টগ্রাম বোর্ডে ১ হাজার ৩৫৬ জন, রাজশাহী বোর্ডে ২ হাজার ১৫৮ জন, বরিশাল বোর্ডে ৯৬৭ জন অনুপস্থিত ও একজন বহিষ্কার, সিলেট বোর্ডে ৯৬৮ জন, দিনাজপুর বোর্ডে ১ হাজার ৮১৮ জন, কুমিল্লা বোর্ডে ১ হাজার ৭৬২ জন অনুপস্থিত ও ৫ জনকে বহিষ্কার করা হয়েছে।
ময়মনসিংহ বোর্ডে অনুপস্থিত ছিল ৮১৩ জন এবং যশোর শিক্ষা বোর্ডে ১ হাজার ৯০৪ জন পরীক্ষার্থী অনুপস্থিত ছিল।
সাধারণ নয়টি বোর্ডে ৯ লাখ ৫৮ হাজার ৯৫১ জনের মধ্যে মোট ১৫ হাজার ২৫৫ জন অনুপস্থিত ছিল। এর হার ১ দশমিক ৫৯ শতাংশ। ছয়জন পরীক্ষার্থীকে বহিষ্কার করা হয়েছে।
কারিগরি শিক্ষা বোর্ডে অনুপস্থিত ছিল ২ হাজার ৬৯৩ জন শিক্ষার্থী এবং এ বোর্ডে বহিষ্কার করা হয় ২৩ জনকে।
এছাড়া কারিগরি শিক্ষা বোর্ডে ভুল প্রশ্নপত্র বিতরণ হওয়ায় এ বোর্ডের অধীনে বাংলা প্রথমপত্র (আবশ্যিক) পরীক্ষা বাতিল করা হয়েছে। পরবর্তী সময়ে এ পরীক্ষার সময় ঘোষণা করা হবে বলে সংশ্লিষ্ট বোর্ড থেকে জানা গেছে।
অন্যদিকে মাদরাসা শিক্ষা বোর্ডের অধীনে সারাদেশে ৪৪৮টি পরীক্ষা কেন্দ্রে ৯৩ হাজার ২৫২ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে মোট ৫ হাজার ৯৯ জন অনুপস্থিত ছিল। অনুপস্থিতির হার ৫ দশমিক ৪৭ শতাংশ বহিষ্কার করা হয়েছে ১৫ জনকে।




শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর









© All rights reserved © 2020 khoborpatrabd.com
Theme Developed BY ThemesBazar.Com