সোমবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২৩, ১২:৫২ অপরাহ্ন

হামাস নির্মূলে ইসরায়েলিদের সক্ষমতা নিয়ে সংশয় জর্ডানের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর

খবরপত্র ডেস্ক:
  • আপডেট সময় শনিবার, ১৮ নভেম্বর, ২০২৩

অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকায় হামাসকে নির্মূল করার যে প্রতিজ্ঞা ইসরায়েল নিয়েছে তা কীভাবে অর্জন করা সম্ভব, এ নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেছেন জর্ডানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আয়মান সাফাদি। তিনি বলেন, চলমান এ সহিংসতা সংঘাত ও আর দুর্ভোগ ছাড়া আর কিছুই ডেকে আনছে না। গতকাল শনিবার (১৮ নভেম্বর) বাহরাইনে অনুষ্ঠিত ১৯ তম ‘আইআইএসএস মানামা সংলাপ’ এর নিরাপত্তা সম্মেলনে এসব কথা বলেছেন সাফাদি। গতকাল শনিবার ব্রিটিশ বার্তাসংস্থা রয়টার্স এই খবর জানিয়েছে।
‘আইআইএসএস মানামা সংলাপ’ মধ্যপ্রাচ্যের পররাষ্ট্রনীতি, প্রতিরক্ষা এবং নিরাপত্তা’ চ্যালেঞ্জ নিয়ে আলোচনা করার একটি অনন্য ফোরাম। গত ১৭ অক্টোবর মধ্যপ্রাচ্যের দেশ বাহরাইনে ১৯তম ‘আইআইএসএস মানামা সংলাপ’ শুরু হয়েছে। তিনদিন ব্যাপী এ সংলাপের দ্বিতীয় দিনে আয়োজিত নিরাপত্তা সম্মেলনে গাজায় চলমান যুদ্ধ পরিস্থিতি নিয়ে কথা বলেছেন জর্ডানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আয়মান সাফাদি।
সম্মেলনে আয়মান বলেন, ‘ইসরায়েল বলছে তারা হামাসকে নিশ্চিহ্ন করতে চায়। এখানে অনেক সামরিক ব্যক্তিত্ব রয়েছেন। আমি ঠিক বুঝতে পারছি না কীভাবে এর বাস্তবায়ন সম্ভব।’
গাজায় চলমান ইসরায়েলি বাহিনীর আগ্রাসন জর্ডানের পুরনো ভয়কে আবারও জাগিয়ে তুলেছে। ফিলিস্তিনি শরণার্থী এবং তাদের বংশধরদের একটি বিশাল অংশ জনসংখ্যা জর্ডানে রয়েছে।
দেশটির আশঙ্কা, অধিকৃত পশ্চিম তীর থেকে ফিলিস্তিনিদের ব্যাপকহারে বাস্তুচ্যুত করতে পারে ইসরায়েল। গত ৭ অক্টোবর দক্ষিণ ইসরায়েলে হামাসের হামলার জবাবে গাজা উপত্যকায় ফিলিস্তিনিদের ওপর ইসরায়েলি বসতি স্থাপনকারীরা অত্যাচারের মাত্রা যে পরিমাণে বাড়িয়েছে, এতে এই আশঙ্কা দিন দিন আরও বাড়ছে। এ নিয়ে জর্ডানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আরও বলেন, ‘আমরা এটি কখনই হতে দেব না। যুদ্ধাপরাধ ছাড়াও এটি আমাদের জাতীয় নিরাপত্তার জন্য সরাসরি হুমকি হয়ে দাঁড়াবে। এটি বন্ধ করতে আমাদের যা যা করা প্রয়োজন আমরা তা-ই করব।’
এসময় তিনি সতর্ক করে বলেন, ‘আরও সংঘাত, আরও দুর্ভোগ এবং মধ্যপ্রাচ্যে আঞ্চলিক সংঘাতের ব্যাপক হুমকি ছাড়া এই যুদ্ধ আর কিছুই ডেকে আনছে না।’




শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর









© All rights reserved © 2020 khoborpatrabd.com
Theme Developed BY ThemesBazar.Com