মঙ্গলবার, ২০ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১১:২০ অপরাহ্ন

হামাসকে ধন্যবাদ জানিয়ে ইসরায়েলি জিম্মির মায়ের আবেগঘন চিঠি

খবরপত্র ডেস্ক:
  • আপডেট সময় বুধবার, ২৯ নভেম্বর, ২০২৩

জিম্মি করা ইসরায়েলিদের সঙ্গে কেমন আচরণ করছে ফিলিস্তিনের স্বাধীনতাকামী সশস্ত্র গোষ্ঠী হামাস—এ নিয়ে অনেকের মনেই শঙ্কা রয়েছে। এরইমধ্যে ইসরায়েল-হামাসের ৪ দিনের যুদ্ধবিরতি চুক্তির আওতায় মুক্তি পেয়েছে বেশ কয়েকজন ইসরায়েলি জিম্মি। তাদের একজন ড্যানিয়েল অ্যালোনি, যিনি মুক্তি পাওয়ার পর, হামাসের হাতে জিম্মি থাকাকালীন তার মেয়ের সঙ্গে মানবিক সদাচরণের জন্য সশস্ত্র যোদ্ধাদের ধন্যবাদ জানিয়ে একটি চিঠি লিখেছেন। তার চিঠিটি সোমবার (২৭ নভেম্বর) হামাসের সশস্ত্র শাখা কাসেম ব্রিগেডের অফিশিয়াল টেলিগ্রাম পেইজে পোস্ট করা হয়। চিঠিটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বেশ সাড়া ফেলেছে। মঙ্গলবার এই খবর প্রকাশ করেছে তুর্কি সংবাদমাধ্যম টিআরটি ওয়ার্ল্ড।
গত ৭ অক্টোবর হামাসের হাতে জিম্মি হওয়া প্রায় ২৪০ জনের মধ্যে দুইজন হলেন ড্যানিয়েল অ্যালোনি ও তার পাঁচ বছর বয়সী মেয়ে এমিলিয়া। টানা ৪৯ দিন গাজায় হামাসের হাতে জিম্মি থাকার পর, হামাস এবং ইসরায়েলের মধ্যে একটি অস্থায়ী যুদ্ধবিরতি চুক্তির অংশ হিসেবে অন্যান্য জিম্মিদের সঙ্গে মুক্তি পান মা ও মেয়ে। এই দীর্ঘ বন্দিকালে মেয়ে এমিলিয়ার পরিপূর্ণ যতœ নেওয়ার জন্য হামাস যোদ্ধাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে একটি আবেগময় চিঠি লিখেছেন অ্যালোনি।
তারা গাজা ত্যাগ করার আগে ড্যানিয়েল অ্যালোনি হামাসকে একটি ‘ধন্যবাদ’ চিঠি লিখেছিলেন। চিঠিতে তিনি বলেন, ‘আমার মেয়ে এমিলিয়ার প্রতি আপনার অসাধারণ মানবিক আচরণের জন্য হৃদয়ের গভীর থেকে আমি আপনাকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি।’
চিঠিটি মূলত হিব্রু ভাষায় লেখা হয়। এটি টেলিগ্রামে প্রকাশ করার সময় চিঠিটির একটি আরবি অনুবাদসহ এর সঙ্গে ইসরায়েলি ওই মা ও তার মেয়ের একটি ছবিও প্রকাশ করা হয়।
ওর নিজেকে রানি মনে হয়েছিল: হিব্রু ভাষায় হাতে লেখা ওই চিঠিতে ড্যানিয়েল বলেন, ‘ও (এমিলিয়া) আপনাদের সবাইকে ওর বন্ধু, শুধু বন্ধু নয়, প্রকৃতপক্ষেই ওর প্রিয় এবং খুব ভাল মানুষ মনে করে।’ গাজায় জিম্মিদের সঙ্গে হামাসের করা ভালো যতœ-আত্মীর কথা স্বীকার করে ড্যানিয়েল লিখেন: ‘পরিচর্যাকারী হিসেবে আপনি আমাদের পেছনে যে দীর্ঘ সময় ব্যয় করেছেন তার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ।’
তিনি আরও বলেন, তার মেয়ে হামাসের সঙ্গে শুধু ভালো সম্পর্কই গড়েনি বরং তাদের সাহচর্যে সে নিজেকে একজন রানি ভাবতো।’
‘যদিও শিশুদের বন্দি করা উচিত নয়, তবুও আপনাকে এবং এ দীর্ঘ সময়ে অন্যান্য আরও যেসব সদয় মানুষদের সঙ্গে পরিচয় হয়েছে তাদের ধন্যবাদ। আমার মেয়ে গাজায় রানির মতো থেকেছে।’
তিনি আরও বলেন, এ দীর্ঘ সময়ে আমাদের এমন কারও সঙ্গে দেখা হয়নি, যারা তার প্রতি সদয় হয়নি, আপনি তার সাথে কোমল এবং সহানুভূতিশীল ছিলেন।’
হামাসের প্রতি সমবেদনা জানিয়ে তার চিঠিটি শেষ করেছেন ড্যানিয়েল। তিনি বলেন, ‘গাজায় আপনি যে কঠিন পরিস্থিতির মুখোমুখি হয়েছেন এবং যে মারাত্মক ক্ষতির মুখে পড়েছেন, তা সত্ত্বেও আপনার এমন সদয় আচরণ আমার মনে থাকবে।’
তিনি বলেন, ‘এই পৃথিবীতে আমরা যদি সত্যিই ভালো বন্ধু হতে পারতাম।’
গাজাবাসীকে শুভকামনা জানিয়ে তিনি আরও বলেন, ‘আপনাদের সবার স্বাস্থ্য এবং মঙ্গল কামনা করছি…আপনার এবং আপনার পরিবারের সন্তানদের জন্য সুস্বাস্থ্য এবং ভালবাসা।’
গত ২৪ নভেম্বর হামাস কর্তৃক মুক্তিপ্রাপ্ত ২৪ ইসরায়েলি জিম্মিদের দুইজন ছিলেন ড্যানিয়েল এবং এমিলিয়া অ্যালোনি। হামাসের হাতে জিম্মি হওয়ার আগে তারা দক্ষিণ ইসরায়েলের কিবুতজ-নির-ওজে ড্যানিয়েলের বোন এবং তার পরিবারের সঙ্গে দেখা করতে গিয়েছিলেন।
গত ৭ অক্টোবর ইসরায়েলের দক্ষিণে দুর্ভেদ্য সামরিক সীমানা ভেদ করে ব্যাপক হামলা চালায় ফিলিস্তিনের সশস্ত্র গোষ্ঠী হামাস। ইসরায়েলি কর্মকর্তাদের মতে, এ হামলায় দেশটির প্রায় এক হাজার ২০০ নাগরিক নিহত হয়। যাদের বেশিরভাগই বেসামরিক। ওইদিনই হামাসের হামলার জবাবে গাজায় পাল্টা হামলা হিসেবে অতর্কিত বোমা হামলা শুরু করে ইসরায়েল। হামাসের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের তথ্যমতে, ইসরায়েলের হামলায় গাজায় এ পর্যন্ত ১৫ হাজারের বেশি বেসামরিক নিহত হয়েছে। যাদের বেশিরভাগই নারী ও শিশু। ইসরায়েলের গাজা আক্রমণ নিয়ে আন্তর্জাতিক সমালোচনার ঝড় ওঠলেও তা আমলে নেয়নি দেশটি।




শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর









© All rights reserved © 2020 khoborpatrabd.com
Theme Developed BY ThemesBazar.Com