বুধবার, ১৮ মে ২০২২, ১২:৩৪ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম ::
পি কে হালদারকে হস্তান্তরে সময় লাগতে পারে : দোরাইস্বামী ২১ ডেঙ্গু রোগী ঢাকার হাসপাতালে ভর্তি হজে যেতে পাসপোর্টের মেয়াদ থাকতে হবে ৪ জানুয়ারি পর্যন্ত কুমিল্লা সিটি নির্বাচন: মেয়র পদে স্বতন্ত্র প্রার্থী বিএনপির দুই নেতা সম্রাটের জামিন বাতিলের বিষয়ে আদেশ আজ আর্থিক অনুমোদনের ক্ষমতা কমলো পরিকল্পনামন্ত্রীর হানিমুনেই আমাকে মেরে ফেলতে চেয়েছিল জনি ডেপ: অ্যাম্বার ২০২২-২৩ অর্থবছরের বাজেটে পরিবহন ও যোগাযোগ খাতে সর্বোচ্চ বরাদ্দ পদ্মা সেতুর টোল নির্ধারণ: বড় বাস ২৪০০, মাঝারি ট্রাক ২৮০০, কার/জিপে লাগবে ৭৫০ টাকা কবিতার ইতিহাসে কাজী নজরুলের ‘বিদ্রোহী’ এক অনন্য সাধারণ রচনা : সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী

আমার কোন আবদারের জায়গা ছিল না’

খবরপত্র ডেস্ক :
  • আপডেট সময় শুক্রবার, ১৫ ডিসেম্বর, ২০১৭

১৪ ডিসেম্বর শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস। বাংলাদেশের ইতিহাসে এক বেদনাবিধুর দিন। এইদিন শহীদ হন বিশিষ্ট সাংবাদিক সেলিনা পারভীন, যিনি স্বাধীনতার পক্ষে ‘শিলালিপি’ নামের একটি পত্রিকার সম্পাদক ও প্রকাশক ছিলেন। তৎকালীন দেশের খ্যাতনামা বুদ্ধিজীবীদের লেখা নিয়ে প্রকাশিত ‘শিলালিপি’ ওইসময় সকলেরই নজর কেড়েছিল। সেলিনা পারভীন তার পত্রিকার বিজ্ঞাপন থেকে আয়কৃত অর্থ দিয়ে মুক্তিযোদ্ধাদের ওষুধ, কাপড়চোপড় এবং হাতখরচের টাকা সরবরাহ করতেন। এসব কিছুই তাকে শত্রুদের চক্ষুশূল করে তুলেছিল। যার প্রতিদান তাকে দিতে হয়েছে নির্মম হত্যাকাণ্ডের শিকার হয়ে। সেলিনা পারভীনকে রাজধানীর সিদ্ধেশ্বরীর বাসা থেকে আলবদর বাহিনী ধরে নিয়ে যায় একাত্তরের ১৩ ডিসেম্বর। সেই সময় তার একমাত্র সন্তান সুমন জাহিদ সেখানে উপস্থিত ছিলেন। তখন তার বয়স ছিল মাত্র ৮ বছর। মায়ের শহীদ হওয়ার ঘটনা, মায়ের অনুপস্থিতিতে বেড়ে ওঠা, মুক্তিযুদ্ধের চেতনা এবং দেশ নিয়ে নিজের ভাবনা বিষয়ে সমকাল অনলাইনের সঙ্গে কথা বলেছেন সুমন জাহিদ। সাক্ষাৎকারটি নিয়েছেন তাসলিমা তামান্না




শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর









© All rights reserved © 2020 khoborpatrabd.com
Theme Developed BY ThemesBazar.Com