মঙ্গলবার, ২২ জুন ২০২১, ০৪:৩৯ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম ::
গহিরা-ফটিকছড়ি সড়কের বিকল্প সড়ক ভেঙ্গে যান চলাচল বন্ধ, জনদুর্ভোগ চরমে পূরণ হতে চলেছে চিতলমারীবাসীর প্রাণের দাবি বিরামপুর হাসপাতালের বেহাল দশা ইউনিয়ন পরিষদ সচিব সমিতি (বাপসা) চাঁদপুর জেলা শাখার উদ্যেগে মোহাম্মদ আবদুল্লাহ আল মাহমুদ জামান এর বিদায় সংবর্ধনা সরকার ঘোষিত এসডিজি অর্জনে উৎপাদনমুখী সমবায় সমিতির গুরুত্ব অপরিসীম-জহিরুল হায়াত গঙ্গাচড়ায় তিস্তার পানি বৃদ্ধি পেয়ে ২ হাজার পরিবার পানিবন্দি ডাক্তারের টেবিলে কুকুর! নির্বাচন পর্যবেক্ষণে যাওয়া আ.লীগ নেতার গাড়ি ভাঙচুর সুনামগঞ্জে করোনা প্রতিরোধে ক্যারাভান প্রদর্শনী গজারিয়ায় জেলা প্রশাসক মোঃ মনিরুজ্জামান তালুকদার এর বিদায় সংবর্ধনা।




ফের বাদ আরিয়ান কার্তিক

বিনোদন ডেস্ক:
  • আপডেট সময় বৃহস্পতিবার, ৩ জুন, ২০২১




ক্যারিয়ার নিয়ে বেশ সংকটে পড়েছেন বলিউড অভিনেতা কার্তিক আরিয়ান। একের পর এক ছবি হাতছাড়া হয়ে যাচ্ছে তার। ‘দোস্তানা ২’, ‘ফ্রেডি’র মতো ছবির পর এবার পরিচালক আনন্দ এল রাই-এর প্রযোজনা থেকেও নাম বাদ পড়ল কার্তিকের। বলিউডের একটি সূত্রে জানা গেছে, পরিচালক আনন্দ এল রাইয়ের নতুন ছবির চিত্রনাট্যও শুনেছিলেন অভিনেতা। গত ফেব্রুয়ারি মাসে কার্তিককে আনন্দের অফিসের বাইরে ক্যামেরাবন্দি করেছিলেন সাংবাদিকরা। তখনই গুঞ্জন উঠেছিল, নতুন কোনো ছবি নিয়ে কথাবার্তা হচ্ছে পরিচালক ও অভিনেতার মধ্যে। কিন্তু হঠাৎ আনন্দ এল রাইয়ের নতুন ছবিতে নাম শোনা যাচ্ছে আয়ুষ্মান খুরানার।
আনন্দ এল রাইয়ের পরবর্তী ছবি আবর্তিত হয়েছে এক গ্যাংস্টারের গল্প নিয়ে । ছবিটি পরিচালনা করছেন আনন্দের সহ-পরিচালক। জানা গেছে, নতুন ওই ছবিতে কার্তিকের অভিনয় নিয়ে নির্মাতাদের চূড়ান্ত পর্যায়ের কথাবার্তা হয়ে গিয়েছিল। শুধু চুক্তির অপেক্ষা ছিল। কিন্তু তার আগেই তার নাম বাদ যায় ছবি থেকে। কী কারণে এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে তা জানা যায়নি। তবে একটি সূত্র জানিয়েছে, যে কারণে করন জোহর তার ছবি থেকে কার্তিককে বাদ দিয়েছিলেন, সম্ভবত তার দ্বারাই প্রভাবিত হয়েছেন বাকিরা। প্রথমে শাহরুখ খান, এখন আনন্দের ছবি থেকে বাদ পড়েছে কার্তিকের নাম। এ ব্যাপারে আনন্দ এল রাই বলেছেন, একটা ছবি বানানোর আগে একাধিক শিল্পীর সঙ্গে কথা বলা হয়। এটাই নিয়ম। সবাইকে জানানো হয় যে তারাই করছেন। অভিনেতা-অভিনেত্রীরাও জানান, তারা উৎসাহী। তবে চুক্তি না হওয়া পর্যন্ত এই সিদ্ধান্তে অনেক পরিবর্তন আসতে পারে।
মহামারির বিরুদ্ধে প্রস্তুতি আরো দৃঢ় করতে হবে। এ জন্য একটি আন্তর্জাতিক চুক্তির বিষয়ে এ বছরই আলোচনা শুরু করার আহ্বান জানিয়েছেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডাব্লিউএইচও) মহাপরিচালক তেদ্রোস আধানম গেব্রিয়াসুস। সোমবার ডাব্লিউএই্ও’র বার্ষিক মন্ত্রিপরিষদ সম্মেলনে তিনি এ আহ্বান জানান। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা প্রধান বলেন, বর্তমানে জাতিসংঘের বিভিন্ন সংস্থাকে কভিড-১৯-এর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণে ‘গুরুতর চ্যালেঞ্জ’ মোকাবেলা করতে হচ্ছে। এ ধরনের সংকট মোকাবেলায় নমনীয় এবং টেকসই তহবিল প্রয়োজন।
আন্তর্জাতিক মহামারি চুক্তির বিষয়ে এখনই আলোচনা শুরু করার প্রয়োজন আছে কি না, সে বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে আগামী ২৯ নভেম্বর ডাব্লিউএইচওর ১৯৪ সদস্য দেশের মন্ত্রীরা বৈঠকে বসবেন বলেও এদিন সিদ্ধান্ত হয়। গত এক সপ্তাহ ধরে মন্ত্রিপরিষদের সম্মেলন চলছে। সোমবার সম্মেলনের শেষদিন ছিল। এদিন স্বাস্থ্যমন্ত্রীরা নতুন নতুন ভাইরাস দমনে বিভিন্ন দেশ এবং ডাব্লিউএইচও উভয়ের সক্ষমতা বাড়াতে স্বাধীন গবেষকদের দ্বারা আরো বেশি উচ্চাকাঙ্ক্ষী গবেষণার প্রয়োজনের বিষয়ে একমত হন।
তেদ্রোস বলেন, আমার বিশ্বাস এই একটি সুপারিশ ডাব্লিউএইচও এবং বৈশ্বিক স্বাস্থ্য সুরক্ষা ব্যবস্থা উভয়কে আরো বেশি শক্তিশালী করতে সবচেয়ে বেশি কাজ করবে। সেই সুপারিশ হলো, মহামারি মোকাবিলার প্রস্তুতি এবং ব্যবস্থা গ্রহণের বিষয়ে একটি আন্তর্জাতিক চুক্তি। এটা এমন একটি পরিকল্পনা, যেটা নিয়ে সামনে অগ্রসর হওয়ার সময় এসে গেছে। এ ধরনের একটি চুক্তি এখন সময়ের দাবি। যদিও এ ধরনের কোনো আন্তর্জাতিক চুক্তিতে পৌঁছতে হলে লম্বা পথ পাড়ি দিতে হবে, সে বিষয়ে কোনো সন্দেহ নেই।




শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর









© All rights reserved © 2020 khoborpatrabd.com
Theme Developed BY ThemesBazar.Com