মঙ্গলবার, ১৭ মে ২০২২, ১০:৫৭ অপরাহ্ন
শিরোনাম ::
পি কে হালদারকে হস্তান্তরে সময় লাগতে পারে : দোরাইস্বামী ২১ ডেঙ্গু রোগী ঢাকার হাসপাতালে ভর্তি হজে যেতে পাসপোর্টের মেয়াদ থাকতে হবে ৪ জানুয়ারি পর্যন্ত কুমিল্লা সিটি নির্বাচন: মেয়র পদে স্বতন্ত্র প্রার্থী বিএনপির দুই নেতা সম্রাটের জামিন বাতিলের বিষয়ে আদেশ আজ আর্থিক অনুমোদনের ক্ষমতা কমলো পরিকল্পনামন্ত্রীর হানিমুনেই আমাকে মেরে ফেলতে চেয়েছিল জনি ডেপ: অ্যাম্বার ২০২২-২৩ অর্থবছরের বাজেটে পরিবহন ও যোগাযোগ খাতে সর্বোচ্চ বরাদ্দ পদ্মা সেতুর টোল নির্ধারণ: বড় বাস ২৪০০, মাঝারি ট্রাক ২৮০০, কার/জিপে লাগবে ৭৫০ টাকা কবিতার ইতিহাসে কাজী নজরুলের ‘বিদ্রোহী’ এক অনন্য সাধারণ রচনা : সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী

রাস্তা তো নয় যেন একটি মরণ-ফাঁদ

আশরাফুল ইসলাম স্টাফ রিপোটার সিরাজগঞ্জ :
  • আপডেট সময় শনিবার, ২২ জানুয়ারী, ২০২২

সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়া উপজেলার ধামাইল কান্দী বাজার টু গয়হাট্টা বাজার রাস্তাটি এখন মরণফাঁদে পরিণত হয়েছে। দীর্ঘদিন থেকে রাস্তাটি সংস্কার করা হলেও জীবনের ঝুঁকি নিয়ে এ রাস্তাদিয়ে চলাচল করছে যানবাহনসহ এলাকার মানুষ,ও ধামাইল কান্দী কেফায়েত আলী আদর্শ বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক কর্মচারী এবং ছাত্র-ছাত্রীরা। রাস্তাটি নির্মাণের পর থেকে প্রয়োজনীয় রক্ষনা বেক্ষন না থাকায় কিছু মাটির ব্যবসায়ীরা ও ইট ভাটার মালিকরা ড্রাম ট্রাক এবং কুত্তা ট্রলি দিয়ে মাটি বোঝাই করে রাস্তা দিয়ে নিয়ে চলাচল করে রাস্তার বেহাল অবস্থা করে রেখেছে। ধামাইল কান্দী বাজার এলাকার সকল জনসাধারণের উপজেলার সাথে যোগাযোগের ক্ষেত্রে একমাত্র রাস্তা এটি। এছাড়াও প্রতিনিয়ত এ রাস্তা দিয়ে শতশত রিক্সা, ভ্যান, ইজিবাইক, ভডভডি, নসিমন, করিমন, সিএনজি, গরুরগাড়ি ও কোম্পানীর পিক-আপ ভ্যানসহ বিভিন্ন রকমের মোটরযান চলাচল করে। ধামাইল কান্দী বাজার ও গয়হাট্টা গ্রামের সকল ধান ব্যবসায়ীদের ধানসহ সকল পণ্য ভারী ট্রাকযোগে এ রাস্তা দিয়ে পরিবহন করতে হয়। রাস্তার প্রায় কিছু জায়গায় পিচ, পাথর ও খোয়া কার্পেটিং উঠে গিয়ে খানাখন্দে পরিণত হয়েছে। অনেক জায়গায় বড় বড় খানাখন্দক সৃষ্টি হওয়ার সম্ভাবনা আছে, ২১/০১/২২ ইং শুক্রবার মাটি কাটা কুত্তা ট্রলির সহিত অটোরিকশার সাথে ধাক্কা লেগে শিশু সহ এক বয়োঃবৃদ্ধ মহিলা আহত হয়,এই রাস্তায় যানবাহন চলাচল করে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে। উপজেলার সাথে যোগাযোগের একমাত্র রাস্তা হওয়ায় অত্যন্ত জনগুরুত্বপূর্ণ এ রাস্তাটি। সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ বা স্থানীয় জনপ্রতিনিধি কেউ এই বিষটি আমলে নিচ্ছেন না। কর্তৃপক্ষের নাকের ডগায় থাকলেও কোন লাভ হচ্ছে না স্থানীয় ভুক্তভোগীদের। তারপরও দীর্ঘদিন ধরে রাস্তাটি মরন ফাঁদে পরিনত হলেও বন্ধ করা হচ্ছে না এসব মাটি কাটা কুত্তা ট্রলি সহ সকল মাটি কাটা যানবাহন বন্ধের নেওয়া হয়নি কোন উদ্যোগ। এলাকার কয়েক হাজার লোক র্মারাত্মক ঝুঁকি নিয়ে যাতায়াত করছেন। এসব এলাকার স্কুল-কলেজগামী শিক্ষার্থীসহ বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ। রাস্তাটির উপর মাটি পরে নষ্ট হয়ে যাওয়ার পর রাস্তায় চলাচলকৃত যাত্রীবাহি যানবাহন প্রায় দুর্ঘটনায় পতিত হয়ে অনেকেই আহত হচ্ছেন। এ রাস্তা দিয়ে সর্বনি¤œ ২০ গ্রামের মানুষ চলাচল করে প্রতিনিয়ত। ধামাইল কান্দী বাজার সড়কটি অতিব্যস্ততম, এ বাজারে রয়েছে বড় বড় দোকান পাট হাটের পাশাপাশি কাঁচা মালের বাজার কলেজ, হাইস্কুল, ব্যাংকসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান রয়েছে। অতি দ্রুত রাস্তাটির উপর দিয়ে মাটি কাটা কুত্তা ট্রলি সহ মাটি কাটা সকল যানবাহন চলাচল বন্ধ করা না হলে এখানে বড়ধরনের দুর্ঘটনা ঘটারও সম্ভাবনা রয়েছে। তাই বৃহত্তর জনস্বার্থে দ্রুত রাস্তাটির উপর দিয়ে মাটি কাটা গাড়ি চলাচল বন্ধ করা প্রয়োজন। এমতাবস্থায় এলাকা বাসীর জোরদাবী মাটি কাটা কুত্তা ট্রলি সহ সকল মাটি কাটা যানবাহন বন্ধ জন্য, স্থানীয় পুলিশ প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।




শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর









© All rights reserved © 2020 khoborpatrabd.com
Theme Developed BY ThemesBazar.Com