বৃহস্পতিবার, ৩০ জুন ২০২২, ০৪:১৭ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম ::
সিলেটে আবার বাড়ছে পানি জামালপুরে শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সভা জগন্নাথপুরে অসহায় মানুষের সেবায় দিনরাত কাজ করে যাচ্ছেন ওসি মিজান দুর্গাপুরে শ্রেষ্ঠ অধ্যক্ষ ও শ্রেষ্ঠ শিক্ষার্থীকে প্রেসক্লাব সম্মাননা সাভারে শিক্ষক হত্যা ও নির্যতনের প্রতিবাদে মৌলভীবাজারে বিক্ষোভ সমাবেশ রুয়েটে রোবটিক্স ফেয়ার “রোবোট্রনিক ২.০” শুরু গলাচিপায় ব্র্যাক সংস্থা সামাজিক ক্ষমতায়ন ও আইনি সুরক্ষা বিষয়ে পল্লী সমাজ গঠন নগরকান্দায় সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার সুমিনুর রহমানকে সংবর্ধনা জামালপুরে হিজড়াদের উন্নয়নে কমিউনিটি পর্যায়ে অভিভাবক সভা বরিশাল পোর্টরোড মোকামে নিষেধাজ্ঞা সত্বেও ট্রাকে ট্রাকে আসছে ইলিশ

প্রধানমন্ত্রীর বরাবর সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে আওয়ামী লীগ নেতার খোলা চিঠি

মঞ্জুরুল ইসলাম রনি শরীয়তপুর :
  • আপডেট সময় সোমবার, ২৩ মে, ২০২২

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে একটি খোলা চিঠি লিখেছেন শরীয়তপুর জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও বর্তমান জেলা আওয়ামীলীগের জনস্বাস্থ্য ও শ্রম বিষয়ক সম্পাদক আলমগীর হোসেন হাওলাদার। সম্প্রতি তিনি বিভিন্ন রোগশোকে ভুগছেন সেই প্রসঙ্গে তিনি লিখেছেন।
প্রিয় নেত্রী
প্রত্রের শুরুতে আমার সালাম নিবেন, আশা করি ১৮ কোটি মানুষের দোয়া’য় আপনি ভালো আছেন। অনেক সমস্যার সম্মুখীন হয়ে আজ খোলা চিঠি লিখতে বাধ্য হলাম। আমি (১৯৯১-১৯৯৫) শরীয়তপুর জেলা ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করি। (১৯৯৫-২০১৬) সাল পর্যন্ত তিন তিনবার জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি’র দায়িত্ব পালন করি এবং কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের দুইবার সদস্য নির্বাচিত হই।আমি শরীয়তপুরের মাটিতে আওয়ামিলীগ কে প্রতিষ্ঠিত করার লক্ষে জীবনের শুরু থেকে আব অবদি দলের জন্য কাজ করে যাচ্ছি। ২০০১ সালে মাদারীপুরে খালেদা জিয়ার আসলে তাকে ওই স্তান থেকে চলে যেতে বাধ্য করি। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৪ টি হল দখল করি এ কে এম এনামুল হক শামীম ও পান্না ভাইয়ের নেতৃত্বে। ২০০১ সালে যেদিন শহীদ এ্যাডঃ হাবিব ভাই ও মনির ভাইকে যেদিন সন্ত্রাসী মেরে ফেলে সেদিন আমার বাড়িতে আমাকে মারার জন্য ১০০ রাউন্ড গুলি চালায়। হেমায়েত উল্লাহ আওরঙ্গের নির্বাচন কালে ৫ বার আমার বাড়িতে ও আমার উপর হামলা চালায় জিবীনের ঝুকি থাকা সত্যেও দলের বাহিরে কোন কাজ করি নাই। প্রিয় নেত্রী আপনাকে যেদিন গ্রেফতার করা হয় সেদিন আমরা সর্ব প্রথম মিছিল নামাই এবং পুলিশের সাথে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া হয়। বিএনপি, জামাতের জাতীয় পার্টি অফিস ভাঙ্গা মামলার আসামী হয়েছি বহুবার। যেমনি দলের জন্য বিরোধী দলের সঙ্গে লড়েছি তেমনি আমাকে অনেক কষ্ট ভোগ করতে হয়েছে এই জীবনে বিরোধী দলীয় দেওয়া মামলার পরিমান ১০০র বেশি এজন্য জীবনে জেলে যেতে হয়েছে ২৪ বার, রিমান্ড দিয়েছে ৭ বাড জাতীয় পার্টি আমলে ডিটেনশনে ছিলাম ৩ বার। পাঁচ বার বাড়ি ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা হয়েছে। যৌবনের রিমান্ডের প্রভাব এখন আমার শরীরে প্রভাব ফেলেছে নানা রোগে আক্রান্ত তার মধ্যে বিশেষ করে দীর্ঘদিন যাবত চোখের সমস্যায় ভুগছি, একা চলতে কষ্ট হয়। ছাত্রলীগের নীতিমালা মানতে গিয়ে অনেক দেড়িতে বিয়ে করি। যার কারনে ২ ছেলে ও ১ মেয়ে অনেক ছোট। যদি সম্ভব হয় প্রিয় নেত্রী একটু জাচাই করে দেখবেন কী পেলাম কী হাড়ালাম। তবে দূঃখ হলো দলের দূর সময়ে ছিলাম আমরা এখন বি এন পি জামাতের নেতা কর্মীরা বড় বড় চেয়ার দখল করে আছে। প্রিয় নেত্রী এখন দলের সু সময় এখন বাড়ি থেকে মানুষের সহ যোগিতা ছাড়া বের হইতে বাড়ি না। জানেন নেত্রী নিজেকে সান্তনা দেই এই ভেবে বঙ্গবন্ধু দেশের জন্য ১৩ বছর জেল খেটেছেন। আপনি পরিবারের সকল সদস্যদের হাড়িয়েছেন।প্রিয় নেত্রী আপনি ছাড়া আমাকে মূল্যায়ন করার মত কাউকে দেখি না কারন অসুস্থ শরীর নিয়ে আমি অনেক নেতার কাছেই গেছি কিন্তু আমাকে কেউ দেখতে আসে নাই।




শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর









© All rights reserved © 2020 khoborpatrabd.com
Theme Developed BY ThemesBazar.Com