সোমবার, ০৪ মার্চ ২০২৪, ১২:০১ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম ::
আশ্রয়ণের ঘর : নির্মাণ কাজ শেষ না করেই বরাদ্দের টাকা উত্তোলনের অভিযোগ কমলগঞ্জে বিশ্ব বন্যপ্রাণী দিবস পালিত শহীদ স্মৃতি উচ্চ বিদ্যালয়ের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা পরিবার কল্যাণ পরিদর্শিকা সমিতির সভাপতির বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ প্রত্যাহারের দাবিতে স্মারকলিপি কক্সবাজার সৈকত থেকে পর্যটক শিকারী ২৫ নারী-পুরুষ গ্রেফতার করেছে পুলিশ ইন্তেকাল করেছেন জনপ্রিয় বক্তা মাওলানা লুৎফর রহমান জামালপুরে ইয়ুথ ফোরামের উদ্যোগে পরিচ্ছন্নতা অভিযান লোহাগাড়ায় জাতীয় ভোটার দিবস পালিত বাগেরহাটে এনজিও স্বদেশ এর পক্ষ থেকে সেলাই মেশিন বিতরণ সীমান্তবর্তী এলাকায় হাতি-মানুষের দুর্বিষহ জীবন যাপন

ইসলামের রীতি-নীতিতে শ্রদ্ধাশীল স্টোকস

স্পোর্টস ডেস্ক:
  • আপডেট সময় শুক্রবার, ৯ ফেব্রুয়ারী, ২০২৪

ইংরেজ স্পিনার রেহান আহমেদ জানালেন 
বেন স্টোকস ও ব্রেন্ডন ম্যাককালামের পরিচালিত ইংল্যান্ড দলের খেলোয়াড়রা মাঠে এবং মাঠের বাইরে ইচ্ছেমতো মতপ্রকাশ করতে পারেন। এই ব্যাপারে তাদের পূর্ণ স্বাধীনতা দিয়েছে টিম ম্যানেজমেন্ট। মাঠের বাইরে স্বাধীনতার অংশ হিসেবে এবার তরুণ লেগ-স্পিনার রেহান আহমেদ প্রশংসা করলেন ইংল্যান্ড অধিনায়কের। রেহান দাবি করেছেন, ইংল্যান্ড অধিনায়কের ইসলামের প্রতি গভীর বিশ্বাস দেখে বেশ খুশি। একজন ধর্মপ্রাণ মুসলমান হিসেবে রেহান ক্রিকেটের চেয়েও তার ধর্মবিশ্বাসকে বেশি গুরুত্ব দেন। তার দাবি, ‘ক্রিকেটের চেয়েও এটা অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ।’ তার প্রতিদিনের কর্মকা-ে ইসলামের সম্পর্কের ব্যাপারে সংবাদমাধ্যমকে জানাতে গিয়ে এমনটাই দাবি করেছেন ইংল্যান্ডের এই তরুণ ক্রিকেটার। ১৯ বছর বয়সী এই ক্রিকেটারের দাবি, অধিনায়ক বেন স্টোকস তার এই ধর্ম আচরণকে ভালো মনেই গ্রহণ করেছেন।
পাকিস্তানি বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ রেহান আহমেদ, ইংল্যান্ডের বাজবল টিমের গুরুত্বপূর্ণ সদস্য। তিনি দাবি করেছেন ইংল্যান্ড অধিনায়ক ইসলামের প্রতি এতটাই শ্রদ্ধাশীল যে তাকে জুমার নমাজের ছুটি নিতে কোনো সমস্যার মুখে পড়তে হয় না। এমনকি, এই ব্যাপারে ট্রেনিং চলাকালীন ছুটি পেতেও তাকে বিশেষ কাঠখড় পোহাতে হয় না। এই ব্যাপারে একটি ঘটনার কথা স্মরণ করে রেহান বলেন, ‘আমার মনে আছে আবুধাবিতে এক শুক্রবারে গোটা দলের বাইরে যাওয়ার কথা ছিল। আমরা কিন্তু, সেদিনও জুমার নমাজ পড়েছি। আমি আর বাশ (শোয়েব বশির) ওখানে নমাজ পাঠ করি। আমি ওয়েনো (ওয়েন বেন্টলি)-কে মেসেজ করি। টিম ম্যানেজারকে জিজ্ঞাসা করতে বলি যে আমরা না গেলেও হবে কি না। কারণ, আমাদের নামাজ পড়া জরুরি।’
রেহান বলেন, ‘স্টোকস আমাকে সরাসরি মেসেজ করেছিল। লিখেছিল, যখনই আপনি এই ধরনের ব্যাপার সম্পর্কে জানতে চান, আমার কাছে আসুন। আমি এটি পুরোপুরি বুঝতে পারি। আর হ্যাঁ, তিনি তার কথা রেখেছেন। আমি যতবারই নামাজ পড়ি, তিনি যে খুবই শ্রদ্ধাশীল, সেটা স্পষ্ট বোঝা যায়। এই সফরেও তেমনটাই হচ্ছে।’
স্টোকস যে রেহানকে সঠিকভাবেই পরিচালনা করছেন, সেটা তরুণ ক্রিকেটারের পারফরম্যান্সেই প্রমাণ। ২০২২ সালের ডিসেম্বরে করাচিতে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে আত্মপ্রকাশ করেছিলেন রেহান আহমেদ। তখন তার বয়স ছিল ১৮ বছর ১২৬ দিন। ওই সময় তিনিই ছিলেন ইংল্যান্ডের হয়ে টেস্ট খেলা সর্বকনিষ্ঠ খেলোয়াড়। পাকিস্তানের দ্বিতীয় ইনিংসে ৫ উইকেট নিয়ে রেহানই ইংল্যান্ডের পক্ষে ম্যাচ ঘুরিয়ে দেন।
ভারতের বিরুদ্ধে বর্তমান টেস্ট সিরিজে রেহান দুই ম্যাচে ৮ উইকেট নিয়েছেন। গড়ে রান দিয়েছেন ৩৬.৩৮। যদিও এই গড়ে সবকিছু বোঝা সম্ভব নয়। কারণ, তিনি খেলার গতিপথ ঘুরিয়ে দেয়ার মতো গুরুত্বপূর্ণ উইকেট নিয়েছেন। শুধু বোলিংয়েই সাফল্য নয়। ব্যাট হাতেও রেহান পার্টনারশিপ গড়ে তোলার চেষ্টা করেছেন। আর, ভারতীয় বোলারদের পুরোপুরি হতাশ করে তুলতে বড় ভূমিকা নিয়েছেন। সূত্র : ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস




শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর









© All rights reserved © 2020 khoborpatrabd.com
Theme Developed BY ThemesBazar.Com