সোমবার, ১৯ অক্টোবর ২০২০, ১২:৫৯ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম ::
সরকারের ব্যাংক ঋণে রেকর্ড: তিন মাসে ৫৭ হাজার ৭০০ কোটি টাকা শতভাগ পেনশন ও ৫০ শতাংশ মহার্ঘ ভাতা চান সরকারি কর্মচারীরা কোটি টাকা দিলেও আমার ছেলেকে ফিরে পাবো না, হত্যাকারীদের ফাঁসি চাই : রায়হানের মা নামাজের জন্যে খুলে দেয়া হল পবিত্র মসজিদুল হারাম সরকার ও নির্বাচন কমিশন নির্বাচনের নামে নাটক করছে : নজরুল ইসলাম জিডিপিতে সামাজিক সুরক্ষা ব্যয়ের হারে বাংলাদেশের চেয়ে এগিয়ে নেপাল, পাকিস্তান, আফগানিস্তান বিএনপি নেতা মোশাররফ হোসেন আর নেই খুলনা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়: ৫৩ বিভাগে পড়তে পারবে ৫ হাজার শিক্ষার্থী ৯০-এর মতো গণ-আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে : নুর কালীগঞ্জে পিচ উঠে যাওয়া সেই রাস্তার নির্মাণ কাজ বন্ধ




নেত্রকোণায় মাদ্রাসার সভাপতির বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রত্যাহার, এলাকাবাসীর কাছে ক্ষমা

মোনায়েম খান নেত্রকোনা :
  • আপডেট সময় রবিবার, ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০২০




জেলার সদর উপজেলার মেদনী ইউনিয়নের নিশ্চিন্তপুর গ্রামের ফাতেমাতুয যাহরা (রা:) মহিলা মাদ্রাসার সভাপতি মুহাম্মদ আব্দুল শহীদের বিরুদ্ধে নিশ্চিন্তপুর গ্রামে মাদরাসা প্রতিষ্ঠা নিয়ে বিভিন্ন দপ্তরে মিথ্যা অভিযোগ করেছে, মাদ্রাসা বিরোধী ও এলাকায় বিশৃঙ্খলা সৃষ্টিকারী একটি সংঘবদ্ধ চক্র। গ্রাম শালিসে এদের অভিযোগ মিথ্যা প্রমানিত হয়েছে এবং ভবিষ্যতে এমন ঘৃণীত কাজ আর করিবে না মর্মে এলাকাবাসীর কাছে অঙ্গীকার করে। গ্রাম শালিসে সকলের কাছে ক্ষমা চেয়ে অভিযোগ প্রত্যাহার করে। পুনরায় জেলা প্রশাসকের কার্যালয়, দুর্নীতি দমন কমিশন সেগুনবাগিচা, ঢাকা। উপ-পরিচালক, দুর্নীতি দমন কমিশন,নেত্রকোণা। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সদর নেত্রকোণা ও জেলা প্রেসক্লাবে অনুলিপি প্রদান করিবে। শনিবার সরজমিনে গিয়ে জানা যায়, মাদ্রাসার বিরুদ্ধে অভিযোগকারি সবাই মেদনী ইউনিয়নের নিশ্চিন্তপুর গ্রামের মো: মিরাজ আলী, মোঃ নজরুল ইসলাম, আব্দুল হামিদ, মোঃ রফিকুল ইসলাম ও বাবুল মিয়া মিলে গ্রামের মানুষের ভূয়া সাক্ষর দিয়ে নিশ্চিন্তপুর মহিলা মাদ্রাসার সভাপতি মুহাম্মদ আব্দুল শহীদের বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ দাখিল করে। গ্রামের ৩৬ জন মানুষ তাদের সাক্ষরের বিষয়ে অস্বীকার করে বলেন এই অভিযোগ সম্পূর্ন মিথ্যা ও বানোয়াট। এই জাল সাক্ষরের বিরুদ্ধে সবাই প্রতিবাদ জানায় ও মিথ্যা অভিযোগ কারিদের শাস্তির দাবি জানায়। গ্রাম শালিসে অভিযোগ মিথ্যা প্রমানিত হওয়ায় অভিযোগকারিরা শনিবার মাদ্রাসার প্রাঙ্গণে এলাকাবাসীর কাছে ক্ষমা চেয়ে অভিযোগ তুলে নিয়ে পুনরায় বিভিন্ন দপ্তরে আবেদন দাখিল করেন। গ্রাম শালিসে উপস্থিত ছিলেন সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি অধ্যাপক তফসির উদ্দিন খান, সদর উপজেলা মেদনী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামীলীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক জিল্লুর রহমান খান নোমান, সদর উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা ইউনিটের সাবেক কমান্ড বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ আয়ুব আলী, জেলা প্রেসক্লাবের সম্পাদক শ্যামালেন্দু পাল, সদর উপজেলার ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল খালেক, মেদনী ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান মোঃ আনোয়ার হোসেনসহ জেলা উপজেলা ও গ্রামের কয়েক হাজার আলেম ওলামা, রাজনৈতিক, সামাজিকসহ ব্যক্তিবর্গসহ ২০ গ্রামের মানুষ শালিসে উপস্থিত ছিলেন। উল্লেখ্য যে গত ৭/৯/২০ ইং তারিখে সদর উপজেলার মেদনী ইউনিয়নের নিশ্চিন্তপুর গ্রামের ফাতেমাতুয যাহরা (রা:) মহিলা মাদ্রাসার সভাপতি মুহাম্মদ আব্দুল শহীদের বিরুদ্ধে নিশ্চিন্তপুর গ্রামে মাদরাসা প্রতিষ্ঠা নিয়ে নানা অনিয়ম নিয়ে বিভিন্ন দপ্তরে মিথ্যা অভিযোগ দাখিল করে। যাহা শনিবার গ্রাম শালিসে মিথ্যা প্রমানিত হয়েছে। এলাকাবাসীর কাছে জানা যায়, মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি মুহাম্মদ আব্দুর শহীদ ফাতেমাতুয যাহরা (রা:) মহিলা মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠার জন্য তার নিজের জমি ও আয়ের সকল অর্থ এই মাদ্রাসার জন্য ব্যয় করেছেন ।




শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর









© All rights reserved © 2020 khoborpatrabd.com
Theme Developed BY ThemesBazar.Com